• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১, ৮ শাওয়াল ১৪৪৫

বাথরুমে টুথব্রাশ রাখলে কী হয়?


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২৩, ০২:০৪ পিএম
বাথরুমে টুথব্রাশ রাখলে কী হয়?

টুথব্রাশ জীবাণুমুক্ত রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বেশির ভাগ ঘরেই টুথব্রাশ বাথরুমে রাখা হয়। কিন্তু বাথরুমে টুথব্রাশ রাখা কতটা স্বাস্থ্যকর, সেটি আমরা অনেকেই ভাবি না। এমনকি শরীরের সুস্থতায় টুথব্রাশ জীবাণুমুক্ত রাখাটাও যে জরুরি, তা-ও মনে করি না। বিভিন্ন রোগের জীবাণুতে পূর্ণ থাকে বাথরুম। টুথব্রাশ বাথরুমে রাখার কারণে লাখ লাখ জীবাণু টুথব্রাশে জমে থাকে। আর এই জীবাণুগুলো ব্রাশের মাধ্যমে সরাসরি আপনার মুখে চলে যায়। এবং তা থেকে হতে মারাত্মক ক্ষতি। তাই চলুন জেনে নিই টুথব্রাশ ব্যবহারে কীভাবে সতর্ক থাকতে হবে।

ব্যাকটেরিয়া এবং দূষণ
আপনার টুথব্রাশ যদি টয়লেট সিটের কাছাকাছি থাকে, তাহলে আপনার ব্রাশটি বায়ুবাহিত কণার সংস্পর্শে আসার সম্ভাবনা বেশি, যা দূষণের কারণ হতে পারে। বাথরুমের পরিবেশ আর্দ্র হতে থাকে, যা আপনার টুথব্রাশে ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধিকে আরও বাড়িয়ে তুলতে পারে।

কমন বাথরুম
আপনার বাথরুম যদি আরও অনেকে ব্যবহার করে তবে দূষণের সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি থাকে। কারণ, একাধিক লোক বাথরুমে থাকা বিভিন্ন জিনিস স্পর্শ করতে পারে।

টুথব্রাশ যেভাবে রাখবেন
ব্যবহার করার আগে টুথব্রাশটি কলের পানিতে ভালোভাবে ধুয়ে নেওয়া ভালো। এটি আপনার টুথব্রাশে লেগে থাকা দূষিত পদার্থগুলোকে অপসারণ করতে সাহায্য করতে পারে। ব্যবহার করার পরে টুথব্রাশটি ব্রাশ হোল্ডারে রাখুন, যাতে এটি বাতাসে শুকিয়ে যায়। একাধিক টুথব্রাশের জন্য আলাদা পকেট আছে এমন পাত্রে রাখতে পারেন, যাতে একে অপরের সংস্পর্শে না আসতে পারে। বাতাসে শুকানোর পর টুথব্রাশ একটি কভার দিয়ে আটকে রাখতে পারেন, যাতে এটি বায়ুবাহিত জীবাণু থেকে রক্ষা পায়। টুথব্রাশ বাথরুমের বাইরে ঘরের কোনো নিরাপদ স্থানে রাখাই সবচেয়ে ভালো।

নিয়মিত টুথব্রাশ পরিবর্তন করুন
আপনার টুথব্রাশ প্রতি ৩-৪ মাস পরপর পরিবর্তন করুন। পুরোনো টুথব্রাশ ব্যবহার করা স্বাস্থ্যকর নয়। তা দিয়ে সঠিকভাবে দাঁত ব্রাশও করতে পারবেন না। নিয়মিত পরিবর্তনের পাশাপাশি ধূলিকণা, ব্যাকটেরিয়া এবং ছত্রাক এড়াতে টুথব্রাশ রাখার পাত্রটিও পরিষ্কার রাখুন।

টয়লেট ব্যবহার
ফ্লাশ করার আগে টয়লেটের ঢাকনা বন্ধ করা একটি স্বাস্থ্যকর অভ্যাস, যা বাথরুমে বায়ুবাহিত জীবাণুর বিস্তার কমাতে সাহায্য করে। যুক্তরাজ্যের একটি গবেষণায় টয়লেটের ঢাকনা খোলা এবং বন্ধ করে পরীক্ষা করা হয়েছে। সেখানে দেখা গেছে যখন টয়লেটের ঢাকনা খোলা রেখে ফ্লাশ করা হয়েছিল, তখন সিটের ওপরে ২৫ সেন্টিমিটার পর্যন্ত ব্যাকটেরিয়া পাওয়া গিয়েছিল। গবেষকরা উল্লেখ করেছেন, ঢাকনা দিয়ে ফ্লাশ করার পরে সিটের ওপরে বাতাসে কোনো ব্যাকটেরিয়া পাওয়া যায়নি। তাই টয়লেট ব্যবহারের ক্ষেত্রেও সতর্ক থাকতে হবে।

Link copied!