• ঢাকা
  • রবিবার, ২১ এপ্রিল, ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১, ১১ শাওয়াল ১৪৪৫

ছারপোকা থেকে বাঁচার উপায়


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২৪, ০৩:৩০ পিএম
ছারপোকা থেকে বাঁচার উপায়
কিছু নিয়ম মেনে চললে ছারপোকার অত্যাচার থেকে মুক্তি পাওয়া যেতে পারে। ছবি : সংগৃহীত

ছোট্ট একটা পোকা, বেশির ভাগ সময় দৃষ্টির আড়ালেই থাকে, সেই ছারপোকাই অস্বস্তির কারণ দাঁড়ায়। রীতিমতো একটা আতঙ্কও তৈরি করে।

ছারপোকা আকারে খুবই ছোট ও ডিম্বাকৃতির, পরিপূর্ণ অবস্থায় এটি লম্বায় সর্বোচ্চ পাঁচ মিলিমিটার (একটা চালের চেয়েও ছোট) হয়ে থাকে।

এদের পাখা থাকে না এবং ছয়টি করে পা থাকে। ছারপোকা দেখতে সাধারণত কালচে লাল, হলুদ বা বাদামি রঙের হয়।

বিশ্বজুড়ে ছারপোকার ৯০টির বেশি প্রজাতি রয়েছে।

ছারপোকা কোথায় থাকে

ছারপোকার ইংরেজি ‘বেডবাগ’ শুনে মনে হতে পারে শুধু বিছানাতেই বুঝি এদের অস্তিত্ব। কিন্তু বিছানা-তোশক ছাড়াও জামাকাপড়, আসবাবপত্র, খাটের ফ্রেম, দেয়ালে ঝোলানো ওয়ালপেপার সবখানেই তাদের দেখা মিলতে পারে।

তারা নিজেদের আবাস হিসেবে বেছে নেয় মানুষ যেখানে ঘুমায়, তার আশেপাশের জায়গা। দিনের আলোতে তারা ম্যাট্রেস, তোশক, টেবিল, ড্রয়ার, ওয়ালপেপার ও খাটের আশপাশে থাকা যেকোনো বস্তু, যেখানেই একটু ফাঁকা পায় নিজেদের লুকিয়ে রাখে। এ জন্য তাদের শুধু একটা ক্রেডিট কার্ড ঢোকানোর মতো জায়গা পেলেই হয়।

রাতের বেলা একেকটা ছারপোকা ১০০ ফুট পর্যন্ত চলাচল করতে সক্ষম, তবে তারা সাধারণত মানুষ যেখানে ঘুমায় তার আট ফুটের মধ্যে থাকতেই পছন্দ করে।

ছারপোকা আছে কি না বুঝবে কীভাবে

এটা বোঝার সবচেয়ে সহজ উপায় কামড়ের দাগ খোঁজা। ছারপোকার কামড় সাধারণত এক সমান্তরালে বা একই জায়গায় একাধিক হয়ে থাকে।

ফর্সা ত্বকের ক্ষেত্রে এই কামড়ের জায়গাটা লাল দেখাবে, কিন্তু কালো বা বাদামি ত্বকের ক্ষেত্রে দাগটা বেগুনি হতে পারে এবং অনেক সময় খালি চোখে ধরাও পড়ে না।

বেশির ভাগ মানুষই ছারপোকার কামড় বুঝতে পারে না, হয়তো কয়েক দিন পর অনেকগুলো কামড়ের দাগ দেখে বুঝতে পারে। আরেকটা দিকেও নজর রাখতে হবে, তা হল বিছানায় কোথাও রক্তের ফোঁটা লেগে আছে কিনা; অনেক সময় ছারপোকা চাপা পড়ে মারা গেলে তার রক্ত লেগে থাকে। এ ছাড়া বিছানা বা ফার্নিচারে অনেক সময় বাদামি দাগও থাকতে পারে, সেটা হলো তাদের অবশিষ্ট খাদ্যকণার দাগ।

ছারপোকা থেকে মুক্তির উপায়

এটা অনেক সময় কঠিন। তবে কিছু নিয়ম মেনে চললে ছারপোকার অত্যাচার থেকে মুক্তি পাওয়া যেতে পারে।

যেমন, যেসব কাপড়ে ও জায়গায় ছারপোকা আছে মনে হবে, সেসব জামাকাপড়, বিছানার চাদর গরম পানিতে ধোয়া এবং অন্তত ৩০ মিনিট গরম বাতাসে শুকানো।

এসব জামাকাপড় বা বিছানার চাদর প্লাস্টিকে মুড়িয়ে তিন থেকে চার দিন ফ্রিজে রেখে দেওয়া।

নিয়মিত ঘরবাড়ি পরিষ্কার রাখা, যদিও পরিচ্ছন্ন জায়গাতেও ছারপোকার অস্তিত্ব থাকে, কিন্তু নিয়মিত পরিষ্কার করলে ছারপোকার অস্তিত্ব সহজে মিলবে।

ব্যবহৃত আসবাব কিনলে সেটা ঘরে তোলার আগে ভালোভাবে পরীক্ষা করে দেখা।

এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনে পোকামাকড় নিরোধক কোম্পানিগুলোর সহায়তাও নেওয়া যেতে পারে।

Link copied!