• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ১১ শা’বান ১৪৪৫

কত বছর পর্যন্ত শিশুকে বুকের দুধ পান করানো যায়


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১, ২০২৩, ০৭:৪৯ পিএম
কত বছর পর্যন্ত শিশুকে বুকের দুধ পান করানো যায়
মায়ের বুকের দুধ শিশুর জন্য রক্ষাকবচের মতো কাজ করে। ছবি : সংগৃহীত

জন্মের পর থেকে শিশুর জন্য মায়ের বুকের দুধই শ্রেষ্ঠ খাবার। এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এতে সঠিকভাবে শিশুর শরীরিক গঠন তৈরি হয়। চিকিৎসকরা বলেন, বুকের দুধে এন্টিবডি রয়েছে যা শিশুর শরীরের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তবে একটি বিষয় নিয়ে মায়েরা বেশ দুঃশ্চিন্তা থাকেন। আর সেটি হলো, কতদিন পর্যন্ত শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানো যাবে।

যুক্তরাজ্যের চিকিৎসকরা বলছেন, শিশুর জন্য প্রথম ছয় মাস মায়ের বুকের দুধ পান করানো বাধ্যতামূলক। এরপর ছয় বছর বয়স পর্যন্ত দুধের সঙ্গে সঙ্গে অন্যান্য শক্ত খাবারও খাওয়ানো যেতে পারে। 

এছাড়া যতদিন মা এবং শিশু দুজনেই চাইবে ততদিন পর্যন্ত দুধ পান করানো উচিত। বিশেষজ্ঞরা একমত হয়েছেন যে বুকের দুধ পান করানো মা এবং শিশু উভয়ের স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। কারণে শিশুর শরীরে যেকোনো ধরণের ইনফেকশন, ডাইরিয়া, এবং বমি ভাব বন্ধ করার ক্ষেত্রে মায়ের দুধ ভালো রক্ষাকবচের মতো কাজ করে।

এটি মা শিশুর সম্পর্ককে মজবুত করে। ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের মত অনুসারে, যতদিন মায়ের ভালো লাগবে ততদিন পর্যন্ত শিশুকে বুকের দুধ খাওয়ানো যাবে। এতে ক্ষতির কিছু নেই। বরং মাই সিদ্ধান্ত নেবেন কখন বন্ধ করতে হবে। এটির সঙ্গে মায়ের পরিবেশ,পরিস্থিতি জড়িত। অনেক কর্মজীবি মায়েরা আছেন যাদের একটা সময়ের পর কাজে ফিরতে হয়। এক্ষেত্রে পরিবার বা বন্ধুদের সহযোগিতার ওপর ভরসা করতেই হয়। এছাড়া অস্বস্তি কাটানোর জন্য আত্মবিশ্বাসের দরকার হয়। এজন্য চিকিৎসকরা বলছেন, এটা একেবারেই মায়ের ব্যক্তিগত বিষয়। তবে এটি খেয়াল রাখতে হবে যে, শিশু যেন অবশ্য প্রথম দুই বছর মায়ের বুকের দুধ খেতে পারে।

Link copied!