• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১, ১৩ শাওয়াল ১৪৪৫

তালের যত উপকারিতা


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১০, ২০২৩, ০৩:২৯ পিএম
তালের যত উপকারিতা

তাল আমাদের দেশের বেশ জনপ্রিয় একটি মৌসুমি ফল। কাঁচা অবস্থায় তালের শাঁস আর পাকলে তার ম ম গন্ধে যেন ভরে ওঠে মন। আর পাকা তাল মানেই হলো তালের রস দিয়ে তৈরি বড়া, তালের ক্ষীর, তালের ভাপা, তালের কেক, আরও কত রকমের পিঠা। নারিকেল ও তাল দিয়ে ভাত খাওয়ার প্রচলনও আছে আমাদের দেশে। কিন্তু অনেকেই জানেন না সুস্বাদু এই ফলের রয়েছে উপকারিতা কতখানি। চলুন তাহলে আজ জেনে নেওয়া যাক তাল খাওয়ার উপকারিতা কী।

তালে থাকে ভিটামিন এ, ভিটামিন বি ও সি। এ ছাড়া জিংক, পটাশিয়াম, আয়রন, ক্যালসিয়ামসহ আরও অনেক খনিজ উপাদান। তার সঙ্গে আরও থাকে অ্যান্টি-অক্সিজেন ও অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি উপাদান। সব মিলিয়ে এই ফল পুষ্টিগুণে ভরপুর।

তালের অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ক্যানসার প্রতিরোধে কার্যকরী ভূমিকা রাখে। সেই সঙ্গে স্বাস্থ্য রক্ষায়ও তাল নানা ধরনের উপকার করতে পারে। স্মৃতিশক্তি ভালো রাখতেও কাজ করে।

তালের ভিটামিন বি শরীরের ভিটামিন বি-এর অভাবজনিত রোগ প্রতিরোধে যথেষ্ট কার্যকরী। এই ভিটামিন রোগ প্রতিরোধ শক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। সেই সঙ্গে এটি শরীরের আরও নানা উপকার করে। তাই তালের মৌসুম এলেই  নিয়মিত তাল খাওয়া প্রয়োজন।

তালের রস শ্লেষ্মানাশক। এটি মূত্রকর, প্রদাহ ও কোষ্ঠাঠিন্য নিবারণ করে। তালের রস থেকে তৈরি তালমিছরি সর্দি কাশির মহৌষধ, যকৃতের দোষ নিবারক ও পিত্তনাশক হিসেবে কাজ করে।

তালে থাকে প্রচুর ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস, যা হাড় ও দাঁতের ক্ষয় প্রতিরোধে সাহায্য করে। অন্ত্রের রোগ ও কোষ্ঠকাঠিন্য সারিয়ে তুলতে কাজ করে তাল। যারা এ ধরনের সমস্যায় ভুগছেন, তাদের জন্য তাল একটি উপকারী ফল হতে পারে।

তালে অনেক গুণ রয়েছে, এ কথা ঠিক। তবে তালের বড়া তৈরি করে খেলে তাতে প্রচুর তেল যোগ হয়। এতে শরীরের ক্ষতি হতে পারে। তা ছাড়া তাল দিয়ে তৈরি খাবারে অতিরিক্ত চিনি যোগ করলেও বাড়তে পারে সমস্যা। তাই এই বিষয়গুলো খেয়াল রাখা ভালো।

Link copied!