• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৩ মে, ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,

কীভাবে বুঝবেন ভিটামিনের অভাবে ভুগছেন?


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: নভেম্বর ২১, ২০২১, ১১:২২ এএম
কীভাবে বুঝবেন ভিটামিনের অভাবে ভুগছেন?

শরীর সুস্থ রাখার জন্য ভিটামিন অত্যন্ত প্রয়োজনীয় উপাদান। পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে শরীরে সব রকম ভিটামিনের সঠিক মাত্রা বজায় থাকা প্রয়োজন। ভিটামিনের অভাব হলে বিভিন্ন ধরনের অসুস্থতা তৈরি হতে পারে। ভিটামিনের অভাবজনিত কারণে শরীরে ক্লান্তি আসে, চেহারায় অপুষ্টির ছাপ পড়ে। কিছু ভিটামিন আছে, যেগুলোর অভাব সরাসরি ত্বক, মুখ ও মুখের ভেতরেও দেখা যায়।

চলুন জেনে নেওয়া যাক কোন লক্ষণগুলো দেখা দিলে বুঝবেন আপনি ভিটামিনের অভাবে ভুগছেন।

ত্বকের শুষ্কতা ও ব্রণ সমস্যা

ত্বক অতিরিক্ত শুষ্ক হওয়া ও ব্রণ হওয়ার অনেক কারণ থাকতে পারে। যেমন হরমোনজনিত পরিবর্তন, ত্বকে ময়লা ও জীবাণু জমে থাকা, ত্বকে নকল ও ভুল পণ্য ব্যবহার করা, ফাঙ্গাল সমস্যা ইত্যাদি। এসব ছাড়াও ভিটামিন স্বল্পতাও দায়ী ত্বক শুষ্ক করে ব্রণ বাড়াতে পারে। ভিটামিন এ ও ই স্বল্পতার কারণে ত্বকে ব্রণ হতে পারে। ভিটামিন বি-১২ এর অভাবে ত্বক বেশ ফ্যাকাশে এবং শুষ্ক হয়ে যায়।

চোখের ফোলা ভাব

অনেক ক্ষেত্রেই অ্যালার্জির কারণে চোখ ফোলা ফোলা লাগতে পারে। তবে যখন এ সমস্যা বারবার হলে ধরে নেওয়া যেতে পারে ভিটামিন ও খনিজ স্বল্পতার কারণেই হচ্ছে। চোখের ফোলা ভাব শরীরে আয়োডিনের মাত্রা কম হওয়ার একটি লক্ষণ।

অনুজ্জ্বল ত্বক

আপনার ত্বক যদি খুব অনুজ্জ্বল দেখায় তাহলে চেহারায় ক্লান্তির ছাপ পড়ে। এর কারণ হলো আপনার ভিটামিন বি১/২-এর অভাব রয়েছে। এই ভিটামিনের অভাবের আরও একটি লক্ষণ হলো সম্পূর্ণ মসৃণ জিব। এ জন্য আপনাকে যা খেতে হবে: স্যামন মাছ, রেড মিট, সিরিয়াল, দই, চিজ ইত্যাদি।

রুক্ষ চুল

যদি আপনার চুল মাঝে মাঝে রুক্ষ দেখায়, চুল বশে না থাকে তাহলে শরীরে বায়োটিন বা ভিটামিন বি৭-এর অভাব রয়েছে। এ বায়োটিনের অভাবে নখ ভেঙে যেতে পারে বা চুল পাতলা হয়ে যায়। ভিটামিন সাপ্লিমেন্টের মাধ্যমে নিয়মিত বায়োটিন খেলে চুলের স্বাস্থ্য ভালো হবে এবং ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকবে। এজন্য আপনাকে খেতে হবে: ডিম, আমন্ড, বাদাম, ডাল ও গোটা শস্য।

মাড়িতে রক্তপাত

দাঁতের মাড়ি থেকে রক্তপাত হওয়ার ঘটনা অনেকের মধ্যেই দেখা যায়। এ সমস্যা দীর্ঘ সময় থাকলে বড় ক্ষতির কারণ হতে থাকে। সাধারণত মাড়িতে রক্তপাত ভিটামিন সি স্বল্পতার কারণে হয়। এই সমস্যা থেকে স্কার্ভিও হতে পারে। অনেক দিন ধরে ভিটামিন সি কম গ্রহণ করা হলে এটা দেখা দেয়।

ফ্যাকাশে ঠোঁট

বিবর্ণ ও ফ্যাকাশে ঠোঁট অনেকগুলো শারীরিক সমস্যার প্রাথমিক লক্ষণ হতে পারে। তবে বেশির ভাগ সময়ই রক্তস্বল্পতার কারণে ঠোঁট ফ্যাকাশে হয়। লোহিত রক্তকণিকা কমে গেলে বা এমনটা হয়, যা অ্যানিমিয়ারও পূর্বলক্ষণ। এর কারণ হতে পারে ভিটামিন-এ ও বি এর স্বল্পতা। এ ক্ষেত্রে প্রচুর ভিটামিন এ, বি-৯, বি-১২ সমৃদ্ধ খাবার খেতে হবে।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

Link copied!