• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ মে, ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪৫

আমের আঁটি খেলে কী হয়


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: মে ৫, ২০২৩, ০৪:৫২ পিএম
আমের আঁটি খেলে কী হয়

চলছে আমের মৌসুম। ফলের রাজা আমের স্বাদে মুগ্ধ দুনিয়ার মানুষ। সুস্বাদু এই ফলের জন্য সবাই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে সারাবছর। অনেকে ইতিমধ্যেই খেয়েও নিয়েছেন তবে আম খাওয়ার পর আমরা আমের আঁটি ফেলে দিই। কথায় আছে আমে দুধে মিলে যায় আঁটি গড়াগড়ি খায়। আসলে বরাবর বাতিলের খাতায় থাকে আমের আঁটি। কিন্তু এর উপকারিতার কথা জানলে আজ থেকে ফেলে না দিয়ে যত্ন করে রেখে দেবেন। চলুন জেনে নিই আমের আঁটির উপকারিতা—

বিশেষজ্ঞরা বলছেন আমের আঁটি ফেলে না দিয়ে যত্ন করে রাখুন। কারণ এটিতে রয়েছে নানান গুনাগুন। প্রতি ১০০ গ্রাম আমের আঁটিতে রয়েছে ৬ গ্রাম প্রোটিন। ২০ গ্রাম ম্যাগনেসিয়াম, ৩২ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট। তিন গ্রাম ডায়েটরি ফাইবার আর প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি৬ ও বি ১২। এছাড়াও আমের আঁটিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যামাইনো অ্যাসিড খনিজ এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান। তাই আজ থেকে আমের আঁটি ফেলে না দিয়ে খেয়ে ফেলুন। চলুন তবে এবার জেনে নিই আমের আঁটির বহুমুখী ব্যবহার—

  • আমের আঁটি শুকিয়ে গুঁড়া করে নিন। এক চিমটি আঁটির গুঁড়ার সঙ্গে দুই চা চামচ সরষের তেল মিশিয়ে চুলের গোড়ায় ভালো করে মালিশ করুন এতে খুশকির সমস্যা দূর হবে, পাশাপাশি চুল উজ্জ্বল হবে।
  • শুষ্ক ত্বকের জন্য আমের আঁটির তুলনা নেই। এজন্য আমের আঁটির গুঁড়ার সঙ্গে সরষের তেল মিশিয়ে ত্বকে মালিশ করুন।
  • দাঁতের যত্নেও আমের আঁটি ব্যবহার করতে পারেন। ঝকঝকে দাঁত আর সুস্থ মাড়ি পেতে আমের আঁটির গুড়া দিয়ে দাঁত মাজুন।
  • পোকামাকড় কামড়ালে জ্বালাপোড়া করে। এই জ্বালাপোড়া দূর করতে আক্রান্ত স্থানে আমের রস বা আমের আঁটির গুঁড়া লাগালে সাময়িকভাবে ব্যথা কমে যায়।
  • যে কোনো খাবারের সঙ্গে আমের আঁটির গুঁড়া মিশিয়ে খেতে পারলে উচ্চ কোলেস্টেরল, উচ্চ রক্তচাপ ডায়াবেটিসের মতো সমস্যা সহজেই নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব।
  • পেটের রোগ সারাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আমের আঁটি। আঁটির গুঁড়া উষ্ণ গরম পানিতে এক চামচ মধুর সঙ্গে মিশিয়ে নিন এই মিশ্রণ পেটের একাধিক রোগ সারিয়ে দেয়। 
Link copied!