• ঢাকা
  • বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৮ শা’বান ১৪৪৫

অবশেষে গাজায় বহু প্রতীক্ষিত যুদ্ধবিরতি শুরু


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: নভেম্বর ২৪, ২০২৩, ১২:১১ পিএম
অবশেষে গাজায় বহু প্রতীক্ষিত যুদ্ধবিরতি শুরু
যুদ্ধবিরতি শুরুর পর দক্ষিণ গাজার রাস্তায় ফিলিস্তিনি নাগরিকরা। ছবি : রয়টার্স

সাত সপ্তাহ পর অবশেষে চার দিনের যুদ্ধবিরতি শুরু হয়েছে ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায়। শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) স্থানীয় সময় সকাল ৭টায় দুই পক্ষের মধ্যে এ চুক্তি কার্যকর হয়। এতে মধ্যস্থতা করছে কাতার।

এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে রয়টার্স।

এ যুদ্ধবিরতিতে মোট ৫০ জন বন্দীকে মুক্তি দেবে হামাস। এর বিনিময়ে ইসরায়েল তাদের কারাগারে থাকা ১৫০ জন ফিলিস্তিনি নাগরিককে মুক্ত করবে। যু্দ্ধবিরতির প্রথম দিনে ১৩ জনকে মুক্তি দেবে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র সংগঠন হামাস। তাদের নাম এখনো জানা যায়নি। তবে তাদের সবাই নারী ও শিশু।

এদিকে যুদ্ধবিরতির শুরুতে গাজায় ১ লাখ ৩০ হাজার লিটার ডিজেল ও ৪ ট্রাক গ্যাস সরবরাহ করা হবে বলে জানিয়েছে মিসর। এ ছাড়া গাজায় প্রতিদিন ২০০ ট্রাক সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে দেশটি।

কাতারের এক মুখপাত্র সাংবাদিকদের বলেন, “সাময়িক এ যুদ্ধবিরতি যুদ্ধ বন্ধের দিকে নিয়ে যাবে বলে আশা করছি।”

টেলিগ্রাম চ্যানেলে হামাসের পক্ষ থেকে সব ধরনের হামলা বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে।

ইসরায়েল ও হামাসের যুদ্ধবিরতির চুক্তিতে মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকায় ছিল কাতার, মিসর ও যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার (২২ নভেম্বর) ইসরায়েল ও হামাস যুদ্ধবিরতির চুক্তির বিষয়ে সম্মত হয়। সে অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার থেকে গাজায় চার দিন ইসরায়েলি হামলা বন্ধ রাখার কথা ছিল। কিন্তু ইসরায়েল জানায়, শুক্রবারের আগে হামলা বন্ধ করবে না তারা। তাই এর আগে জিম্মিদের মুক্তি দেওয়া হবে না বলে জানিয়ে দেয় হামাস। তবে অবশেষে বন্দী মুক্তির মাধ্যমে সাময়িক বিরতিতে যাচ্ছে দুই পক্ষ।

Link copied!