• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১২ জুলাই, ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১, ৬ মুহররম ১৪৪৫

কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ইমরানের ভাগ্য নির্ধারণ


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: এপ্রিল ৫, ২০২২, ০৩:০৯ পিএম
কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ইমরানের ভাগ্য নির্ধারণ
ছবি : সংগৃহীত

নানা নাটকীয়তার পর ভেঙে দেওয়া হয়েছে পাকিস্তানের সংসদ। সেই সঙ্গে খারিজ করে দেওয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে আনা অনাস্থা প্রস্তাব।

তবে ইমরানের বিরুদ্ধে আনা অনাস্থা প্রস্তাব ও সংসদ ভেঙে দেওয়ার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে আদালত। এ নিয়ে বিরোধীদের করা মামলার রায় মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) দিতে পারে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট।

আদালতের সিদ্ধান্তে জানা যাবে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ভাগ্যে আসলে কী আছে। বিবিসি বলছে, সোমবার (৪ এপ্রিল) দেশের সুপ্রিম কোর্ট বিরোধীদের দায়ের করা মামলা রায় স্থগিত রাখে। মঙ্গলবার রায় ঘোষণার জন্য নির্ধারণ করা হয়।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব রোববার খারিজ করে দেন পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদের ডেপুটি স্পিকার কাসিম সুরি।

সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৫ এর উল্লেখ করে ডেপুটি স্পিকার কাসিম সুরি জানান, রাষ্ট্রের আনুগত্য করা প্রত্যেক নাগরিকের মৌলিক দায়িত্ব। সংবিধান ও আইনের প্রতি আনুগত্য নাগরিকদের জন্য বাধ্যতামূলক এবং পাকিস্তানে অবস্থান করা প্রত্যেকের জন্যই তা প্রযোজ্য।

ডেপুটি স্পিকারের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতে যান বিরোধীরা। এর জেরে সৃষ্ট সংকটের প্রেক্ষাপটে স্বতঃপ্রণোদিত (সুয়োমোটো) নোটিশ দেন সর্বোচ্চ আদালত।

এরপর সোমবার শুনানি হয় প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের বৃহত্তর বেঞ্চে। পরে মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) স্থানীয় সময় দুপুর ১২টা পর্যন্ত তা মুলতবি করে সর্বোচ্চ আদালত।

অনাস্থা প্রস্তাব খারিজ হওয়ার জন্য জাতিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন ইমরান। তিনি বলেন, এই সিদ্ধান্তের মাধ্যমে ডেপুটি স্পিকার “সরকার পতনের চেষ্টা ও বিদেশি ষড়যন্ত্রকে প্রতিহত করেছেন।”

ইমরান খানের বিরুদ্ধে দেশ শাসনে অনিয়মের অভিযোগ এনে গত ৮ মার্চ অনাস্থা প্রস্তাব জমা দেয় বিরোধী দলগুলো। এ প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা ও ভোটাভুটির জন্য অধিবেশন ডাকতে স্পিকার আসাদ কায়সারের প্রতি লিখিত আবেদন জানান তারা।

Link copied!