• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১, ১২ মুহররম ১৪৪৫

উত্তর কোরিয়ার ৩ লাখ মানুষ ‘জ্বরে আক্রান্ত’


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: মে ১৫, ২০২২, ১০:১১ এএম
উত্তর কোরিয়ার ৩ লাখ মানুষ ‘জ্বরে আক্রান্ত’
ছবি : এপি

করোনা ভাইরাসের প্রকোপে টালমাটাল হয়ে আছে উত্তর কোরিয়া। দেশটিতে লকডাউন শুরু হওয়ার চারদিনের মধ্যে ৪২ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। তবে তারা করোনা আক্রান্ত ছিলেন কি না, তা নিশ্চিত করেনি কর্তৃপক্ষ। মৃত্যুর কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, জ্বরে আক্রান্ত হয়ে সবাই মারা গেছেন। এরমধ্যে পুরোদেশ লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে।

রোববার দেশটির কর্তৃপক্ষ জানায়, এদিন জ্বরে ভুগে নতুন ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। জ্বরে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ২ লাখ ৯৬ হাজার ১৮০ জন।

রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএন বলছে, এপ্রিলের শেষ থেকে তীব্র জ্বরের প্রকোপ শুরু হয় দেশে। তবে জ্বরের তীব্রতার উৎস জানা যায়নি। মোট ৮ লাখ ২০ হাজার ৬২০ জনের দেহে জ্বর দেখা দেয়। চিকিৎসাধীন আছেন ৩ লাখ ২৪ হাজার ৫৫০ জন। কিন্তু মৃত ও এতসংখ্যক মানুষের করোনা হয়েছে কি না, সে বিষয়ে নিশ্চিত করেনি কর্তৃপক্ষ।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, ২০১৯ সালে প্রথম করোনা শনাক্ত হয় চীনের উহানে। এত দিন করোনা শনাক্ত হওয়ার কথা স্বীকার করেনি উত্তর কোরিয়া। দুই বছর পর চলতি সপ্তাহে করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়ার কথা জানায় দেশটি। পরদিন করোনায় একজনের মৃত্যুর খবর জানা যায়। এরপর দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা করেছেন দেশটির শীর্ষ নেতা কিম জং উন। কিন্তু করোনা শনাক্ত পরীক্ষা ও চিকিৎসার জন্য কঠোর কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

কেসিএন বলছে, মহামারির বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে উত্তর কোরিয়া। কিন্তু আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সাহায্য করা টিকা গ্রহণ করতে নারাজ পিয়ংইয়ং।

দেশের সকল প্রদেশ, জেলা ও শহর সম্পূর্ণভাবে লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে। সকল কর্মক্ষেত্র বন্ধ। ১২ মে সকাল থেকে উৎপাদন ইউনিট ও আবাসিক ইউনিট একে অপরের থেকে বন্ধ। সমস্ত লোকের কঠোর ও নিবিড় পরীক্ষা করা হচ্ছে।

একদিন আগেই মহামারিকে দেশের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় দুর্যোগ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন কিম। এই সংকট কাটিয়ে উঠতে জনগণের সর্বাত্মক প্রতিরোধের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, উত্তর কোরিয়ায় করোনা পরীক্ষার হার বেশ কম, যা দিয়ে দেশের মোট শনাক্ত ও মৃত্যু নিশ্চিত করা যায় না। তারা টিকা কার্যক্রম চালু করেনি। এতে দেশের হাজার হাজার মানুষ মৃত্যু কোলে ঢলে পড়তে পারেন।

Link copied!