• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৩ শা’বান ১৪৪৫
‘বিবর্তনের ৫৫ বছর’

শাহজীবাজার বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড উচ্চ বিদ্যালয়ের পুনর্মিলনী


হবিগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২৩, ০৭:১২ পিএম
শাহজীবাজার বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড উচ্চ বিদ্যালয়ের পুনর্মিলনী

‘বিবর্তনের ৫৫ বছর’—এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে হবিগঞ্জের শাহজীবাজার বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করেন প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা।

পুনর্মিলনী বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য সচিব স্কাউট লিডার আজিজুল ইসলাম মতিনের পরিচালনায় প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে এসেম্বলি করে জাতীয় সংগীত পরিবেশন, পতাকা উত্তোলন শেষে পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়।

এরপর বিশাল শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি এলাকার প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। সকাল সাড়ে ৯টায় একের পর এক ব্যাচ মঞ্চে উঠে তাদের পরিচয় প্রকাশ করেন। বেলা ১১টায় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিদ্যালয়ের প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থী মোজাম্মেল হায়দারের সভাপতিত্বে ও সাবেক শিক্ষার্থী শেখ তাজুল ইসলাম তুহিন এবং আরশির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাহজীবাজার বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রধান প্রকৌশলী মিজানুর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ মইনুল ইসলাম মইন, ডিজাইন অ্যান্ড সোর্স লিমিটেডের (ডিএসএল) গ্রুপের চেয়ারম্যান কাজী মাহজাবিন মমতাজ। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের অন্যতম আয়োজক, সফল উদ্যোক্তা জাহাঙ্গীর আলম, ‘সংবাদ প্রকাশ’-এর প্রধান নির্বাহী বিধান রিবেরু, ডিএসএল গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আয়েশা আক্তার মনি, পরিচালক রাশেদুল হাসান মাসুদ ও রফিকুল হাসান মাহমুদ, ব্রাহ্মণডোরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হোসাইন মোহাম্মদ আদিল জজ মিয়াসহ আরও অনেকে।

এ সময় অতিথিদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন মহিবুর রহমান পিপলু, শাহাদাত হোসেন তালুকদার, হাসিবুর রহমান শান্ত ও মাসুদা খাতুন লিজা। আলোচনা সভা শেষে মাসুদ রানার পরিচালনায় নির্মিত ‘ফিরে দেখা সেই দিনগুলি’ শিরোনামের প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

দুপুর ২টায় পুরনো দিনের স্মৃতিচারণ করেন ১৯৮০ ব্যাচের শিক্ষার্থী, বৃন্দাবন সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ড. মাসুদুল হাসান, ১৯৮১ ব্যাচের শিক্ষার্থী ও ডিএসএল গ্রুপের প্রধান নির্বাহী মো. জাহাঙ্গীর আলম, ১৯৮২ ব্যাচের এখলাছুর রহমান, ১৯৮৬ ব্যাচের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ডা. শেখ সাইফুল ইসলাম, ৮৭ ব্যাচের হোসেন মো. আদিল, ৯৬ ব্যাচের রফিকুল হাসান মাহমুদসহ আরও অনেকে। এ সময় মঞ্চে বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষকদের মধ্যে প্রধান শিক্ষক মধুসূদন গুপ্ত ও আব্দুল হক ভুইয়া, সহকারী শিক্ষক আক্তারুন্নেছা চৌধুরী, হাবিবুর রহমান, নুরুল কবির এবং নজরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

পুনর্মিলনী বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক ইঞ্জিনিয়ার জমির আলী সমাপনী বক্তব্যে মাধ্যমে এর সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

১৯৬৮ সালে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৭৬ সাল থেকে বিদ্যালয়টি এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে আসছে। এটি জেলার অন্যতম শীর্ষস্থানীয় বিদ্যাপীঠ হিসেবে সুনামের সাথে শিক্ষা বিস্তারে নিয়োজিত রয়েছে। এ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা দেশ ও বিদেশে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে কাজ করে আসছেন।

শিক্ষা বিভাগের আরো খবর

Link copied!