• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ মে, ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪৫

বৈশাখের ফ্যাশনে যা ভুলে গেলে চলবে না


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৩, ২০২৪, ০৭:৩৬ পিএম
বৈশাখের ফ্যাশনে যা ভুলে গেলে চলবে না
ছবি: সংগৃহীত

বৈশাখের সাজে নারীরা লাল শাড়ি, টিপ আর চুড়ি পরে। খোপায় দেয় রঙিন ফুল। সবমিলিয়ে বৈশাখে রঙিন সাজে সেজে থাকে নারীরা। পাশাপাশি পুরুষরাও কম নন। নারীদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে পুরুষরাও এখন বৈশাখে ফ্যাশন সচেতন। তারাও নিত্যনতুন ফ্যাশন নিয়ে বেশ উত্সাহী।

নববর্ষের সাজে বৈশাখের ছোয়া দিতে দামি পোশাক আর সাজের অনুষঙ্গের প্রয়োজন নেই। দামি পোশাকে সবার নজর কাড়া যাবে তাও কিন্তু নয়। বরং অল্প খরচেই ফ্যাশনেবল পোশাকে নিজেকে সাজানো যায়। এরজন্য একটু ফ্যাশন সচেতন হতে হবে। একটু ভিন্নভাবে চিন্তা করতে হয়। স্বতন্ত্র স্টাইল স্টেটমেন্ট দিয়েই আপনি হতে পারেন বিশেষ একজন।

নববর্ষের সাজ পারফেক্ট করতে ফ্যাশনে কিছু আইডিয়া নিতে পারে। যা বৈশাখের ফ্যাশনের জন্য অত্যন্ত জরুরি। স্বস্তির বৈশাখ পালনে এই বিষয়গুলো ভুলে গেলে চলবে না। তাই পহেলা  বৈশাখে ফ্যাশনের কিছু জরুরি বিষয় মনে রাখুন।

  • বৈশাখে কী পরবেন তা আগেই ঠিক করে রাখুন। শাড়ি, পাঞ্জাবি দামি না হোক তা অবশ্যই পরিপাটি হতে হবে। দামি পোশাক কিনেছেন, কিন্তু কুচকে রইলো এমন শাড়ি বা পাঞ্জাবি পরলেই বৈশাখের সাজটা ভেস্তে যাবে। তাই পোশাক পরার আগে তা ইস্ত্রি করে পরিপাটি করে নিন।
  • পোশাক আর সাজ যেমন যত্ন করে করেছেন তেমনই সুগন্ধি বাছাইয়ের ক্ষেত্রেও সতর্ক থাকুন। পোশাক পরার আগে বডি স্প্রে বা রোল অন ডিয়োডোর‌্যান্ট লাগিয়ে নিন। গরমে বৈশাখে বাইরে যাচ্ছেন সুগন্ধি না লাগালে অস্বস্তিতে পড়বেন। তাই সুগন্ধি লাগাতে ভুলবেন না। এছাড়াও পোশাকের উপরেও শক্তিশালী সুগন্ধি ব্যবহার করতে হবে। যেন অন্যদের কাছে আপনি আরও আকর্ষণীয় হয়ে উঠেন।
  • ঈদ আর বৈশাখ উপলক্ষে অবশ্যই চুলের কাটিং বদলে নিবেন। নিজের লুক বদলাতে নতুন হেয়ারস্টাইল জরুরি। তাই ফেশিয়ালের পাশাপাশি চুলের কাটিং করিয়ে নিন। মুখের গড়নের সঙ্গে মানানসই করে চুল কাটবেন। তবে চুল কাটানোর বিষয়ে সতর্ক থাকুন। বেশি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে যাবেন না। মেয়েরা শাড়ির সঙ্গে মানানসই হেয়ারকাট দিন। অন্যদিকে ছেলেরা নিজের পছন্দমতো চুল কেটে নিন। পাশাপাশি দাড়িও কেটে নিন। তবে যাদের দাড়ি-গোঁফ রাখলে মানায় তারা হালকা ট্রিম করে নিতে পারেন।
  • পোশাকের সঙ্গে আরামদায়ক জুতো হতে হবে। আর জুতোও পরিপাটি হতে হবে। ময়লা  জুতো বা স্যান্ডেল পরা যাবে না। পালিশ করিয়ে নিন। বৈশাখে অনেকে হাটাহাটি হয়। তাই আরামদায়ক স্যান্ডেল বা জুতোই পরবেন।
  • বৈশাখের সকাল থেকে বাইরেই ঘোরা হয়। বাড়ির বাইরে যখনই যাবেন অবশ্যই সানগ্লাস নিয়ে নিন। পোশাকে যে সাজই দেন এর সঙ্গে সানগ্লাস পরতেই হবে। এতে আপনাকে আরও ফ্যাশনেবল লাগবে।
Link copied!