• ঢাকা
  • শনিবার, ২০ জুলাই, ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৩ মুহররম ১৪৪৫

যুক্তরাজ্যের কারণে সিরিয়ায় ৪০ হাজার শিশুর লেখাপড়া বন্ধ


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: মে ৫, ২০২২, ০৪:৫২ পিএম
যুক্তরাজ্যের কারণে সিরিয়ায় ৪০ হাজার শিশুর লেখাপড়া বন্ধ

যুক্তরাজ্যের সহায়তা বাতিলের কারণে ৪০ হাজার সিরীয় শিশুর পড়াশোনা বন্ধ হয়ে গেছে। শিগগিরই অনেক স্কুল বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলেও আশঙ্কা করছে স্থানীয় দাতব্য সংস্থাগুলো।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম গার্ডিয়ান জানায়, সিরিয়ার ১৩৩টি স্কুল যুক্তরাজ্যের ত্রাণ দ্বারা পরিচালিত হতো। তবে এই তহবিল গত ৩০ এপ্রিল থেকে বন্ধ রয়েছে। ব্রিটিশ সরকার তার মোট বিদেশি সহায়তা ব্যয়ের ০.৭% থেকে ০.৫%  কমিয়ে ফেলায় এই সংকট সৃষ্টি হয়।

যুক্তরাজ্যের সরকার ও অন্যান্য দাতাগোষ্ঠী তহবিল না দিলে উত্তর সিরিয়ার শিশুদের একটি প্রজন্ম স্কুলের বাইরেই থাকবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এর ফলে শিশুশ্রম ও বাল্যবিবাহের মতো সামাজিক সমস্যা বেড়ে যেতে পারে। দাতব্য সংস্থা অ্যাকশন ফর হিউম্যানিটি বলছে, সামরিক ও সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোতে শিশুদের যোগদান, শিশু নির্যাতন ও পাচারের মতো ঘটনাও এর সঙ্গে জড়িত।

২০২১ সালে যুক্তরাজ্য প্রায় ৪২০ কোটি পাউন্ডের বৈদেশিক সহায়তা বন্ধ করে দেয়। এর ফলে ১০ বছর ধরে গৃহযুদ্ধে বিপর্যস্ত সিরিয়ার কয়েক লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, মাতৃস্বাস্থ্য ও উদ্বাস্তু কর্মসূচিতে সিরিয়ায় ৬৯ ভাগ আর্থিক সহায়তা কমে যায়।

২০২১ সাল থেকে দেশটির শিক্ষাব্যবস্থা থেকে মোট ১ লাখ শিশু ঝড়ে পড়েছে। ব্রিটিশ সহায়তার অভাবে আগস্টের মধ্যে ২৪টি স্কুলের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাবে। ফলে বড় ধরণের বিপর্যয়ের মুখে পড়বে পরবর্তী প্রজন্ম।

Link copied!