• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০১ মার্চ, ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৯ শা’বান ১৪৪৫

করমচার উপকারিতা


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: আগস্ট ১৪, ২০২৩, ০৩:০৭ পিএম
করমচার উপকারিতা

আমাদের দেশে জনপ্রিয় ফলগুলোর ভিড়ে অবহেলিত অথচ পুষ্টিগুণে ভরা একটি ফল করমচা। দেখতে ছোটখাটো, লাল টুকটুকে সুন্দর  টকজাতীয় এই ফল নানান উপকার করে আমাদের শরীরে। এই ফলের রয়েছে একাধিক রোগ দূর করার ক্ষমতা। এটি মূলত একটি মৌসুমী ফল।

করমচা গ্রীষ্ম ও বর্ষাকালে প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায়। এর বৈজ্ঞানিক নাম ক্যারস্সিসা কারান্ডাস। ফলটির রঙ হালকা লাল, গোলাপি এবং সাদা হয়ে থাকে। তবে পাকলে লালচে হয়ে যায়। কাঁচা থাকাকালীন করমচা দেখতে সবুজ রঙের হয়। 

করমচা খেলে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমে অনেকটাই।  ধমনীতে রক্ত চলাচলও ঠিকভাবে হয়ে থাকে।

নিয়মিত করমচা খেলে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমে। এটি ওজন কমাতে দারুণ কার্যকরী। সেইসঙ্গে পেটের রোগ থেকে মুক্তি দিতেও কাজ করে। 

দাঁত ও মাড়ি মজবুত রাখতে চাইলে করমচা খেতে হবে। এই ফলে প্রচুর ভিটামিন সি, বি এবং আয়রন থাকে। সেইসঙ্গে করমচায় পাওয়া যায় প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ট্যানিন, ক্যারিসোন এবং ট্রাইটারপেনয়েড। যে কারণে করমচা খেলে শরীরে আরও অনেক উপকার পাওয়া যায়।

লিভার ও কিডনিজনিতে যাদের সমস্যা রয়েছে তারা এই সময় করমচা খেতে পারেন। আমাদের শরীরে কোলাজেন উৎপাদনে সাহায্য করে করমচায় থাকা কপার। 

 অনেকটা চেরি ফলের মতো দেখতেও এই দেশীয় ফল খুবই সহজলভ্য। কাঁচা খাওয়া, আচার তৈরি ছাড়াও মোরব্বা ও বিভিন্ন তরকারিতে দিয়েও খাওয়া যায় করমচা।

Link copied!