• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১, ১৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

পাবনায় ১০ হাজার ছাড়াল করোনা রোগী


পাবনা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: আগস্ট ১, ২০২১, ০৯:৪৪ পিএম
পাবনায় ১০ হাজার ছাড়াল করোনা রোগী

পাবনায় গত ২৪ ঘণ্টায় (শনিবার সকাল আটটা থেকে রোববার সকাল আটটা পর্যন্ত) ১৬৯ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

এতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়াল। 

রোববার (১ আগস্ট) জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা অংশুপ্রতীম বিশ্বাস এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

অংশুপ্রতীম বিশ্বাস জানান, পাবনায় প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় গত বছর ১৬ এপ্রিল চাটমোহর উপজেলাতে। প্রথম দফায় সংক্রমণের হার বেশ কম ছিল। চলতি বছর মে মাস থেকে সংক্রমণের হার বাড়তে শুরু করে। মে মাসে রোগী শনাক্ত হয় ৪৬১ জন। জুন মাসে শনাক্ত দাঁড়ায় ১ হাজার ৫৬৫ জন। জুলাই মাসে এসে শনাক্ত দাঁড়ায় ৫ হাজার ৪১৫ জনে। শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ১৭ দশমিক ৩৭ শতাংশে।

পরিসংখ্যান কর্মকর্তা আরও জানান, রোববার পর্যন্ত মোট রোগী শনাক্ত হয়েছে ১০ হাজার ১০৮ জন। হিসাব অনুযায়ী জুলাই মাসেই মোট সংক্রমিত রোগীর ৫০ শতাংশ শনাক্ত হয়েছে।

২৫০ শয্যার পাবনা জেনারেল হাসপাতালের প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, ২৫০ শয্যার হাসপাতালটিতে বর্তমানে ১৫০ শয্যার করোনা ইউনিট খোলা হয়েছে। গত মাসের শেষ সপ্তাহ পর্যন্ত এই ইউনিটে প্রতিদিন শতাধিক রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন। বর্তমানে রোগী ভর্তির হার কিছুটা কমেছে। রোববার ৬৬ জন রোগী ভর্তি রয়েছে। আক্রান্ত রোগীদের অনেকেই বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে।

হাসপাতাল সূত্র আরও জানায়, এই হাসপাতালে ১০০ শয্যার করোনা ইউনিট চালু করা হলেও করোনা পরিস্থিতির ঊর্ধ্বগতির জন্য ২০০ শয্যায় উন্নিত করার লক্ষ্যে কাজ চলমান। বর্তমানে ১৫০ শয্যার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

সরকারিভাবে কঠোর লকডাউন চললেও এবং করোনা সংক্রমণের হার বৃদ্ধি পাওয়ার পরও চলমান কঠোর বিধিনিষেধ মানতে চাচ্ছেন না অনেকেই। জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের চরম কঠোরতার মধ্যে লুকোচুরি করে দোকানপাট খোলার চেষ্টা করছেন নানা শ্রেণির ব্যবসায়ীরা। এতে করোনা সংক্রমণ আরও বাড়তে পারে বলে মনে করছেন চিকিৎসকেরা।

পাবনার সিভিল সার্জন ডা. মনিসর চৌধুরী বলেন, সাধারণ মানুষের সচেতনতার ওপর নির্ভর করবে করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের।

মনিসর চৌধুরী বলেন, জুলাই মাসে সংক্রমণের হার কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী থাকলেও বর্তমানে শনাক্ত কমছে। হাসপাতালেও রোগীর চাপ কিছুটা কম রয়েছে। সবাইকে বিধিনিষেধ মেনে চলতে অনুরোধ জানিয়ে প্রশাসনিক তৎপরতাসহ প্রচার যন্ত্রে প্রচারণা অব্যাহত রয়েছে।

Link copied!