চাঁদের উদ্দেশ্যে জ্বলে ওঠল নাসার আর্টেমিস


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: নভেম্বর ১৬, ২০২২, ০৫:৩৬ পিএম
চাঁদের উদ্দেশ্যে জ্বলে ওঠল নাসার আর্টেমিস

চাঁদের কক্ষপথে অরিয়ন নামের একটি মহাকাশযান পৌঁছে দেয়ার উদ্দেশ্যে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী রকেট আর্টেমিস উৎক্ষেপণ করেছে মার্কিন মহাকাশ সংস্থা নাসা।

বিবিসি জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় বেলা ১টায় ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে সফলভাবে উৎক্ষেপণ সম্পন্ন হয় রকেটটির। শক্তিশালী এই রকেটটির উচ্চতা প্রায় ৩২৮ ফুট, যা প্রায় ৩২ তলা ভবনের সমান। অরিয়ন ক্যাপসুলে করে ভবিষ্যতে মানুষকে চাঁদে নিয়ে যাওয়ার উদ্দেশ্যেই পরীক্ষামূলক এই উৎক্ষেপণ করা হয়েছে।

আপাতত জনশূণ্য অরিয়ন ক্যাপসুলটি চাঁদের কক্ষপথে প্রবেশের পর সেখানে কিছুদিন অবস্থান করবে, দশটি স্যাটেলাইট স্থাপন করবে এবং পৃথিবীর উদ্দেশ্যে রওনা হবে। আশা করা হচ্ছে ২৬ দিনের মহাকাশ ভ্রমণ শেষে আগামী ১১ ডিসেম্বর প্রশান্ত মহাসাগরে অবতরণ করতে পারবে ক্যাপসুলটি।

আর্টেমিস-১ এর যাত্রা সফল হলে পরেরবার মানুষ নিয়ে রকেট উৎক্ষেপণ করবে নাসা। এর মাধ্যমে ৫০ বছর পর আবার চন্দ্রাভিযানে নেমেছে সংস্থাটি। মূলত মহাকাশ ভ্রমণের উদ্দেশ্যেই এই অভিযান পরিচালনা করছে নাসা। পরবর্তী অভিযানে নভোচারীদের দলে একজন নারী ও একজন কৃষ্ণাঙ্গকে অন্তর্ভুক্ত করবে সংস্থাটি। এর মাধ্যমে তারা পৃথিবীকে জানাবে, মহাকাশ ভ্রমণ সবার জন্য উন্মুক্ত।

প্রায় ৫০ বছর পর আবার চাঁদে ফিরে যাওয়ার ব্যাপারে নাসা জানিয়েছে, তাদের উদ্দেশ্য বৈজ্ঞানিক আবিষ্কার করা, দেশকে আর্থিকভাবে লাভবান করা এবং নতুন প্রজন্মের অভিযাত্রীদের জন্য অনুপ্রেরণা জোগানো।

তবে আপাতত চাঁদকে লক্ষ্য করে আগালেও, নাসা ভ্রমণপ্রেমীদের নিয়ে যেতে চায় লাল রঙের মঙ্গলগ্রহে। ২০২৫ সালে অরিয়ন ক্যাপসুলে করে চান্দ্রপৃষ্ঠে মানুষ অবতরণ করাতে চায় নাসা।

এর আগে তিনবার আর্টেমিসের উৎক্ষেপণ প্রচেষ্টা বাতিল করা হয়েছিল। গত আগস্ট মাসে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে প্রথম প্রচেষ্টা বাতিল করা হয়। এরপর সেপ্টেম্বর মাসে টানা দুইবার যান্ত্রিক ও আবহাওয়াজনিত কারণে রকেট উৎক্ষেপণ করতে গিয়েও পিছিয়ে আসে নাসা।

Link copied!