• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০১ মার্চ, ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৯ শা’বান ১৪৪৫

‘উন্নয়নের চিত্র জনগণের কাছে পৌঁছাতে গণমাধ্যমের ভূমিকা অপরিসীম’


সংবাদ প্রকাশ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: আগস্ট ৯, ২০২৩, ০৯:২৪ পিএম
‘উন্নয়নের চিত্র জনগণের কাছে পৌঁছাতে গণমাধ্যমের ভূমিকা অপরিসীম’
ছবি : সংগৃহীত

জনগণের কাছে সরকারের উন্নয়নের খবর পৌঁছে দিতে গণমাধ্যমের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি বলেছেন, “দেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক উন্নয়নের চিত্র জনগণের কাছে পৌঁছাতে গণমাধ্যমের ভূমিকা অপরিসীম।”

বুধবার (৯ আগস্ট) বিকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে ‘বাংলাদেশের সাম্প্রতিক উন্নয়নের গতি-প্রকৃতি’ শীর্ষক বিএসটি নাগরিক সংলাপে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সিঙ্গাপুরের উদাহরণ টেনে এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, “ছোট্ট একটি দেশ, সেখানে ৬৫ বছর ধরে তারা স্থিতিশীল। আগে বাবা, এখন ছেলে দেশটি শাসন করছেন। একটা ব্যারেন ল্যান্ড (অনুর্বর ভূমি) ছিল। এমন ব্যারেন ল্যান্ড যে মালয়েশিয়া থেকে বের করে দিতে হয়েছে। দরিদ্র জায়গা। কিন্তু রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার কারণে তারা এখন এশিয়ার নাম্বার ওয়ান।”

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “বর্তমানে সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে জীবন সহজভাবে কীভাবে চালাতে হয় সে বিষয়। কারণ বর্তমানে পৃথিবীতে এক অনিশ্চয়তা চলছে। প্রায়ই বলে থাকি, যেসব দেশে রাজনৈতিক ও আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা আছে, শান্তি আছে- সেসব দেশে অঙ্কের হিসাবে দেখলে তাদের উন্নয়ন সবচেয়ে বেশি।”

আব্দুল মোমেন বলেন, “যারা দেশকে ভালোবাসে তারাই দেশের কথা চিন্তা করে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মানুষের কথা চিন্তা করে বাংলাদেশকে দরিদ্র থেকে উন্নয়নশীল দেশে রূপান্তর করেছেন। আগামী রূপকল্প ২০৪১ সালে বাংলাদেশ সমৃদ্ধ উন্নত দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে।”

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “যেসব দেশে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা, শান্তি-শৃঙ্খলা নেই। সেখানে ভরাডুবি হয়েছে। ইরাক একসময় মধ্যপ্রাচ্যের অগ্রসর দেশ ছিল। সিরিয়া অনেক ভালো ছিল। আফ্রিকার মধ্যে সবচেয়ে উন্নত দেশ ছিল লিবিয়া। তাদের কোনো দেনা ছিল না। সুখে-শান্তিতে ছিল। কিন্তু তারা এখন মারামারি-কাটাকাটি নিয়ে ব্যস্ত।”

আব্দুল মোমেন আরও বলেন, “গত ছয় মাসে দুনিয়ার প্রায় ৬০ দেশে নির্বাচন হয়েছে। আগামী ডিসেম্বরে আমাদের নির্বাচন হওয়ার আগে আরও ২২ দেশে নির্বাচন হবে। আমার কাছে নাম আছে। কিন্তু দুঃখের বিষয়- মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রতিদিনের ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে অনেক আলোচনা হয়। আর আমি যে শখানেক দেশের নির্বাচনের কথা বললাম, তাদের নিয়ে কোনো আলাপ নেই। এর একটি অর্থ হচ্ছে আমাদের অবস্থান অনেক উন্নত হচ্ছে। আমাদের দেশের প্রতি সবার আকর্ষণ বেড়েছে।”

Link copied!