• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ মে, ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৫ জ্বিলকদ ১৪৪৫

ভারতের মণিপুরে দেখামাত্র গুলির নির্দেশ


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: মে ৪, ২০২৩, ০৮:০৯ পিএম
ভারতের মণিপুরে দেখামাত্র গুলির নির্দেশ

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় মণিপুর রাজ্যে উপজাতীয় গোষ্ঠীগুলোর এক বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে সহিংসতা শুরু হওয়ার পর রাজ্য জুড়ে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা জারি করা হয়েছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বুধবার রাজ্যটির কিছু এলাকায় সহিংস ঘটনা ঘটার পর সেখানে কারফিউ জারি করা হয়েছে। রাজ্য সরকার বিক্ষোভকারীদের ‘দেখামাত্র গুলির’ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কিছু এলাকায় পাঁচ দিনের জন্য মোবাইল ইন্টারনেট সেবার স্থগিত করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভারতীয় সেনাবাহিনী বিক্ষুব্ধ এলাকাগুলোতে ফ্ল্যাগ মার্চ করে। সেনাবাহিনী বলছে, বুধবার রাত জুড়ে তারা সাড়ে ৭ হাজারেরও বেশি বেসামরিক লোককে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিতে ত্রাণ কার্যক্রম চালিয়েছে।

এ রাজ্যের মেইতেই সম্প্রদায়, যারা মণিপুরের জনসংখ্যার কমপক্ষে ৫০%, তারা তপশিলি উপজাতি (এসটি) হিসেবে শ্রেণীভুক্ত হওয়ার জন্য গত কয়েক বছর ধরেই দাবি জানিয়ে আসছিল।

ভারতে যে সব সম্প্রদায় ঐতিহাসিকভাবে সমান সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছে, তাদের এসটি শ্রেণিভুক্ত করে সরকারি চাকরি, কলেজে ভর্তি ও নির্বাচিত জনপ্রতিনিধির আসন সংরক্ষণ করা হয়।

গত মাসে মণিপুর হাইকোর্ট রাজ্য সরকারকে মেইতেই সম্প্রদায়ের দাবি বিবেচনার নির্দেশ দেয়। কিন্তু রাজ্যের অন্য উপজাতিগুলোর মধ্যে এতে উদ্বেগ সৃষ্টি হয়। মেইতেইদের এসটি মর্যাদা দেওয়া হলে তাদের চাকরির জন্য তীব্র প্রতিযোগিতার মুখে পড়তে হবে। এর প্রতিবাদ জানাতে মঙ্গলবার মণিপুরের অল ট্রাইবাল স্টুডেন্টস ইউনিয়নের ডাকা এক মিছিলে হাজার হাজার লোক যোগ দেয়।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস পত্রিকার রিপোর্টে বলা হয়, চুড়াচান্দপুর জেলায় সমাবেশে আসা বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে আরেকদল লোকের সংঘর্ষ শুরু হয়। এরপর বিষ্ণুপুর এবং আরও কয়েকটি এলাকা থেকেও সংঘর্ষের খবর পাওয়া যায়।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এন বীরেন সিং বলেছেন, গত ২৪ ঘণ্টা ধরে কিছু সংঘর্ষ-ভাঙচুরের খবর পাওয়া গেছে, এবং রাজ্য সরকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সবরকম ব্যবস্থা নিচ্ছে।

Link copied!