• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ মে, ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৫ জ্বিলকদ ১৪৪৫

ঘূর্ণিঝড় মোখায় ভারতের ১০ রাজ্যে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: মে ১১, ২০২৩, ০১:৩৭ পিএম
ঘূর্ণিঝড় মোখায় ভারতের ১০ রাজ্যে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস

বঙ্গোপসাগরে থাকা গভীর নিম্নচাপ শক্তি বাড়িয়ে ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’য় রূপ নিয়েছে, যা এগিয়ে চলেছে স্থলভাগের দিকে। এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে উত্তর-পূর্ব ও দক্ষিণ ভারতের অন্তত ১০টি রাজ্যে ভারী বৃষ্টি হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে দেশটির আবহাওয়া অধিদপ্তর।

বৃহস্পতিবার (১১ মে) ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো এসব তথ্য জানিয়েছে। ১২ মে নাগাদ ঘূর্ণিঝড়টি বাঁক নিয়ে উত্তর ও উত্তর পূর্ব দিকে অগ্রসর হবে। এরপরেও তা শক্তি বাড়াবে। ১৪ মে দুপুরে দক্ষিণ পূর্ব বাংলাদেশ এবং উত্তর মিয়ানমার উপকূল অতিক্রম করবে এবং আস্তে আস্তে শক্তি হারাবে।

ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, ১৩ মে বিচ্ছিন্নভাবে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে নাগাল্যান্ড, মণিপুর, মিজোরাম, ত্রিপুরায়। ১৪ মে এই পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে অরুণাচল প্রদেশ, আসাম ও মেঘালয়ে। ১৪ মে ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি হতে পারে নাগাল্যান্ড, মণিপুর, মিজোরাম ও ত্রিপুরায়।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, “ঘূর্ণিঝড়টিকে ভয় পাওয়ার দরকার নেই। প্রয়োজনে আমরা উপকূলীয় এলাকা থেকে লোকজনকে সরিয়ে নেব। পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড়টি বাংলাদেশে এবং তারপরে মিয়ানমারের দিকে অগ্রসর হবে।”

আবহাওয়া অধিদপ্তর আরও জানিয়েছে, এই পরিস্থিতিতে অন্ধ্রপ্রদেশ, রায়ালসীমা, দক্ষিণ কর্ণাটক এবং কেরালাতেও ১১ মে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় মোখা বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের উপকূল ছুঁয়ে উত্তর-পূর্ব ভারতের দিকে অগ্রসর হবে বলে পূর্বাভাস দিচ্ছে দেশটির আবহাওয়া দপ্তর। এর প্রভাবে আগামী তিন দিন বিচ্ছিন্নভাবে বৃষ্টি এবং পরের দুদিন উত্তর-পূর্ব ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের বিস্তীর্ণ এলাকায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

Link copied!