• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ মে, ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪৫

গর্ভপাতের ওষুধ নিয়ে পাল্টাপাল্টি রায়


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: এপ্রিল ৮, ২০২৩, ১২:০৫ পিএম
গর্ভপাতের ওষুধ নিয়ে পাল্টাপাল্টি রায়

যুক্তরাষ্ট্রের একজন ফেডারেল বিচারক বহুল ব্যবহৃত গর্ভপাতের ওষুধ মাইফপ্রিস্টোনের অনুমোদন বাতিল করে দিয়েছেন। টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের এ বিচারককে নিয়োগ দিয়েছিলেন সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

তবে এ রায়ের মাত্র এক ঘণ্টার পর ওয়াশিংটন অঙ্গরাজ্যের সাবেক প্রেসিডেন্ট ওবামা নিযুক্ত আরেকজন বিচারক এর বিপরীত আরেকটি আদেশ জারি করেছেন। তিনি ১৭টি রাজ্যে এ ওষুধ প্রাপ্তির ক্ষেত্রে কোনো ধরনের পরিবর্তন না করার নির্দেশ দিয়েছেন।

শনিবার (৮ এপ্রিল) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে। এতে বলা হয়, এ পাল্টাপাল্টি আদেশের ফলে বিষয়টি মার্কিন সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। গত ২০ ধরে অধিকাংশ গর্ভপাতের জন্য অনুমোদিত এ ওষুধ ব্যবহৃত হয়ে আসছিলেন দেশটির নারীরা।

৬৭ পৃষ্ঠার রায়ে বিচারক ম্যাথিউ ক্যাসমারিক তার নিজের রায়কে ৭ দিনের জন্য স্থগিত রেখেছেন, যাতে সরকার আপিল করার সুযোগ পায়। তার এ রায়ের কারণে লাখ লাখ নারীর জন্য এ ওষুধ পাওয়ার সুযোগ সীমিত হয়ে পড়তে পারে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, এ রায় যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থার গোটা ভিত্তির ওপর মারাত্মক হুমকির সৃষ্টি করেছে। গত বছর মার্কিন সুপ্রিম কোর্ট গর্ভপাতের সাংবিধানিক সুরক্ষা তুলে নেওয়ার পর একের পর এক অঙ্গরাজ্য তা নিষিদ্ধ ঘোষণা করছে।

রায়ে বিচারক ম্যাথিউ ক্যাসমারিক বলেন, “খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসনের (এফডিএ) এ ওষুধ অনুমোদনে কেন্দ্রীয় আইন লঙ্ঘিত হয়েছে। কারণ তার নির্দিষ্ট ওষুধটি তড়িঘড়ি করে অনুমোদন করেছে। ২০০০ সালে এফডিএ মাইফপ্রিস্টোন অনুমোদনের আগে চার বছর ধরে তা পর্যালোচনা করে।”

টেক্সাসের রায়ের মাত্র এক ঘণ্টা পর ওয়াশিংটন অঙ্গরাজ্যের একজন ফেডারেল বিচারক ঠিক উল্টো একটি রায় প্রদান করেন। তিনি ডেমোক্র্যাট নিয়ন্ত্রিত ১২টি অঙ্গরাজ্যের বাজারে এ ওষুধ সহজলভ্য করার জন্য এফডিএকে নির্দেশ দিয়েছেন।

Link copied!