• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১,

প্রতিদিন কতটুকু প্রোটিন খাওয়া যায়?


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২৩, ০৪:৩৪ পিএম
প্রতিদিন কতটুকু প্রোটিন খাওয়া যায়?

শরীরে পুষ্টির যোগান দিতে আমাদের কিছু না কিছু প্রোটিন গ্রহণ করতে হয়। নিয়মিত প্রোটিন গ্রহণ করলে তা পেশি তৈরি থেকে শুরু করে ওজন নিয়ন্ত্রণ, ত্বকের স্বাস্থ্য বজায় রাখা, চুল পড়া বন্ধসহ আরও অনেক উপকার করে। তবে কার্বোহাইড্রেট বা ফ্যাটের মতো প্রোটিন শরীরে জমা থাকে না। তাই বিশেষজ্ঞরা প্রতিদিন প্রোটিনযুক্ত খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেন।

শরীরে প্রয়োজনীয় প্রোটিনের ঘাটতি তৈরি হলে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। এর ফলে মনোযোগ কমে যাওয়া, পেশির দুর্বলতা, ওজন বৃদ্ধি, অলসতা, বিভ্রান্তি ইত্যাদি সমস্যা তৈরি হতে পারে। তবে পুষ্টিবিদরা এটাও বলেন যে, অতিরিক্ত প্রোটিনযুক্ত খাবার খেলে কিংবা এটি ঠিকভাবে হজম না হলে সমস্যা হতে পারে।

কতটুকু প্রোটিন প্রয়োজন প্রতিদিন

প্রাপ্তবয়স্কদের ক্ষেত্রে প্রতিদিনের প্রয়োজনীয় প্রোটিনের পরিমাণের হিসাবটা বেশ চমৎকার। তার ওজনের প্রতি কেজিতে ০.৮ থেকে এক গ্রাম প্রোটিন। অর্থাৎ কারও ওজন যদি ৬৫ কেজি হয় তবে তার প্রতিদিন ৫২-৬৫ গ্রাম প্রোটিন দরকার হতে পারে। শারীরিক পরিশ্রমের ওপর নির্ভর করে প্রোটিন কম-বেশি প্রয়োজন হতে পারে। সেইসঙ্গে বয়স, শারীরিক অবস্থা এবং স্বাস্থ্যের ওপরও নির্ভর করে।

প্রোটিন হজম না হলে কী হয়

অন্ত্রের সমস্যা

প্রতিদিনের প্রয়োজনীয় প্রোটিন প্রতিদিন গ্রহণ করতে হবে। তবে প্রোটিন ঠিকভাবে হজম হওয়ার বিষয়টিকে আমরা বেশিরভাগ সময়েই গুরুত্ব দিতে চাই না। অথচ এর ওপর নির্ভর করে প্রোটিন থেকে ফল পাওয়া যাবে কি না। অতিরিক্ত প্রোটিন গ্রহণ করলে বা এটি ঠিকভাবে হজম না হলে অন্ত্রের সমস্যা হতে পারে। সেসব সমস্যার মধ্যে রয়েছে বদহজম, কোষ্ঠকাঠিন্য, পেট ফাঁপা ইত্যাদি।

ওজন বৃদ্ধি

ওজন নিয়ন্ত্রণের জন্য নিয়মিত প্রোটিনযুক্ত খাবার খাওয়া জরুরি। কিন্তু অতিরিক্ত প্রোটিন খেলে এর ঠিক উল্টোটা ঘটে। অর্থাৎ ওজন বেড়ে যেতে পারে। জার্নাল ক্লিনিক্যাল নিউট্রিশন অনুসারে, অতিরিক্ত প্রোটিন খেলে তা ফ্যাট জমা করে। যে কারণে ওজন বেড়ে যেতে পারে।

ডিহাইড্রেশন

অতিরিক্ত প্রোটিন খেলে তা শরীরে ডিহাইড্রেশন সৃষ্টি করতে পারে। ফেডারেশন অব আমেরিকান সোসাইটির এক গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব খেলোয়াড় নিয়মিত বেশি প্রোটিন খান তাদের হাইড্রেশন লেভেল তুলনামূলক কম।

কিডনির সমস্যা

যারা অতিরিক্ত প্রোটিন খায় তাদের কিডনির অসুখে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেক বেশি। অতিরিক্ত প্রোটিন খাওয়ার ফলে অনেক বেশি স্যাচুরেটেড ফ্যাট জমা হয় যা আমাদের শরীরের প্রাকৃতিক ডিটক্সিফিকেশনে বাধা দেয়।

Link copied!