• ঢাকা
  • শনিবার, ১৮ মে, ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,

ইভিএমে ভোটগ্রহণে ধীরগতি


গাজীপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত: মে ২৫, ২০২৩, ০২:৪৫ পিএম
ইভিএমে ভোটগ্রহণে ধীরগতি

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে কয়েকটি কেন্দ্রে ইভিএমে ভোটগ্রহণে ধীরগতি দেখা গেছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ মে) শহীদ আহসানউল্লাহ স্কুল অ্যান্ড কলেজ, হাজী আলমাস উচ্চ বিদ্যালয় ও মজিদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে ঘুরে ভোটারদের বেশ উপস্থিতি দেখা গেছে।

ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ইভিএমে ভোট দেওয়ার নিয়ম বুঝতে তাদের সমস্যা হচ্ছে। কীভাবে ইভিএমে ভোট দিতে হয় তা তারা জানেন না।

এ বিষয়ে শহীদ আহসানউল্লাহ স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার সুজন চন্দ্র দাস বলেন, “এই এলাকার অধিকাংশ মানুষ নিরক্ষর। ইভিএমে কীভাবে ভোট দিতে হয় তা বুঝতে তাদের সমস্যা হচ্ছে। আমরা নিয়ম বুঝিয়ে দিচ্ছি।”

এই কেন্দ্রে বেলা পৌনে ১১টা পর্যন্ত ১৭০টা ভোট পড়েছে বলে জানা গেছে। এখানে মোট ভোটার সংখ্যা ১ হাজার ৮শ ৪১।  

গাজীপুর সদরের টেকনগপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিজাইডিং রেজাউর রহমান বলেন, “দেড় ঘণ্টায় আট বুথে মাত্র ৩ শতাংশ ভোট পড়েছে। এখানে মোট ভোটার দুই হাজার ৪০৭ জন। ইভিএমের কারণে কিছুটা ধীরগতি দেখা যাচ্ছে।”

ওই কেন্দ্রের ভোটার জাবেদ হোসেন বলেন, “এক ঘণ্টার বেশি অপেক্ষার পর ভোট দিতে পেরেছি, আমার ভোট দিতে তিন-চার মিনিট লাগছে।”

এদিকে ইভিএমে ভোটগ্রহণে যাতে ধীরগতি না হয় সে ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আজমত উল্লা খান। সকালে টঙ্গীর ৫৭ নম্বর ওয়ার্ডের দারুস সালাম মাদ্রাসা কেন্দ্রে ভোট দিয়ে তিনি গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় তিনি এ আহ্বান জানান।  

এই কেন্দ্রে ৮টি বুথের মধ্যে ২টিতে সাময়িক ত্রুটি দেখা দেয় সকালে। এজন্য এই দুই বুথে আসা ভোটাররা বিড়ম্বনায় পড়েন। পরে ইভিএম দুটি মেরামত করা হয়।

এ বিষয়ে কেন্দ্রের পিজাইডিং অফিসার জাকির হাসান তালুকদার বলেন, “দুইটা বুথে ইভিএমে সাময়িক সমস্যা দেখা দিয়েছিল। একটা বুথে পা লেগে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়। অন্যটাতে কারিগরি ত্রুটি দেখা দিয়েছিল। এগুলো আমরা ঠিক করেছি।”   

Link copied!