• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১,

সাকিবের প্রশংসায় পঞ্চমুখ গিল


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২৩, ১১:১১ এএম
সাকিবের প্রশংসায় পঞ্চমুখ গিল
ভারতীয় ওপেনার শুভমান গিল। ছবি: সংগৃহীত

এশিয়া কাপে সুপার ফোরের শেষ ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে আরও একবার দলের টপ অর্ডার ব্যর্থ। দলকে লড়াই কারার মতো পুঁজি এনে দিতে ত্রাণকর্তা হয়ে এলেন টাইগার অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তাওহীদ হৃদয়কে সঙ্গে নিয়ে গড়লেন ১০১ রানের জুটি। নিজেও খেললেন ৮০ রানে এক ইনিংস। ব্যাট হাতেই তার দায়িত্ব শেষ হয়ে যায়নি। কারণ তিনিতো বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। এদিন সাকিব ৪.৩০ ইকোনমিতে বল করে নিয়েছেন ১ উইকেট। সাকিবের অলরাউন্ডার পারফরম্যান্সের কারণে ভারতকে এশিয়া কাপে ১১ বছর পর হারাতে পেরেছে টাইগাররা।

ব্যাটে বলে দারুণ পারফরম্যান্স করার কারণে ম্যাচসেরার পুরস্কারও পেয়েছেন টাইগার অধিনায়ক। শুক্রবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে সাকিবের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ভারতীয় ওপেনার শুভমান গিল। এই ওপেনার বলেন, “সাকিব বাংলাদেশের হয়ে ভালো খেলেছে। সে-ই আমাদের কাছ থেকে ম্যাচটা কেড়ে নিয়েছে।”

বাংলাদশের বিপক্ষে গিলের ১২১ রান ও অক্ষর প্যাটেলের ৪২ রান ছাড়া তেমন বলার মতো ইনিংস খেলতে পারেননি ভারতের ব্যাটাররা। এদিন গিলদের পরিকল্পনা ছিল ডট বল কম খেলা সিঙ্গেল বের করা। গিল বলেন, “ডট বল যেন কম হয়, আমরা নিজেদের মধ্যে তা নিয়ে আলোচনা করেছি। বেশি সিঙ্গেল নেওয়ার চেষ্টা করেছি। বল যদি ব্যাটে আসে, তাহলে খেলার পরিকল্পনা ছিল। রাতের বেলা বলের মুভমেন্ট বেশি ছিল। দিনে ব্যাটিং ও রাতে ব্যাটিংয়ে একটা পার্থক্য তো ছিলই।”

এদিন বেশ কয়েকবারই ম্যাচের মোমেন্টাম হারিয়েছে ভারত। বাংলাদেশের বোলিংয়ে কিছুটা খাবি খেতে হয়েছে ভারতীয় ব্যাটারদের। সেই প্রসঙ্গও উঠে এলো সংবাদ সম্মেলনে গিল বলেন, “আমরা মাঝে ম্যাচের অবস্থা বুঝতে ভুল করেছি। আমাদের এই ভুল থেকে শিখতে হবে, বিশেষ করে ফাইনালের আগে।”

ভারত সুপার ফোরের প্রথম দুই ম্যাচ জিতে তারা আগেই ফাইনাল নিশ্চিত করে নেয়। তাই বাংলাদেশের বিপক্ষের ম্যাচটি তাদের জন্য কম গুরুত্বপূর্ণ। আর সামনে বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে আগের ম্যাচের ৫ ক্রিকেটারকে বিশ্রাম দিয়েছিল ভারত। ৫ ক্রিকেটারকে বিশ্রামে দিয়ে ম্যাচ হারের জন্য আঙ্গুল তুলেছেন অনেকেই। তবে, সেদিক থেকে ইতিবাচকই আছেন এই ব্যাটার। গিল বলেন, “আমাদের খেলোয়াড়দের সতেজ হয়ে ওঠার বিষয়টা দেখতে হবে। কারণ, সামনে বিশ্বকাপ আছে। বিশ্বকাপে আমাদের কিছু ম্যাচ আছে ভারতের উত্তরে, তখন শীতকাল থাকবে। আমাদের খেলোয়াড়দের সে জন্যই বিশ্রাম দিয়ে খেলাতে হবে।”

Link copied!