• ঢাকা
  • রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৪ শা’বান ১৪৪৫

আল নাসর হারলেও, জয় পেয়েছে আল ইত্তিহাদ


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: আগস্ট ১৫, ২০২৩, ০৩:৩৩ পিএম
আল নাসর হারলেও, জয় পেয়েছে আল ইত্তিহাদ
ছবি: সংগৃহীত

সৌদি প্রো লিগে বড় তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে ছাড়া খেলতে নেমে হার দেখতে হয়েছে আল-নাসরকে। আল ইত্তিফাকের কাছে তাদের হার  ২-১ গোলের ব্যবধানে। দিনের অন্যম্যাচে নতুন মৌসুমটা দারুণভাবে শুরু করেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আল-ইত্তিহাদ। করিম বেনজেমা, এনগোলো কান্তে, ফ্যাবিনিয়োদের দল প্রথম ম্যাচে ৩-০ গোলের জয় পেয়েছে  আল রাইদের বিপক্ষে।

সৌদি আরবের কিং ফাহাদ স্টেডিয়ামে রোনালদো বিহীন মাঠে নামেন আল নাসর। এর আগে ক্লাব চ্যাম্পিয়ন্স কাপের ফাইনালে খেলা শেষ করার আগেই মাঠ ছেড়েছিলেন রোনালদো। মূলত সেদিন চোট পেয়েই তিনি মাঠ ছেড়েছিলেন। ধারণা করা হয়েছিল, সেই চোট হয়তো গুরুতর নয়। তবে লিগের প্রথম ম্যাচে তার অনুপস্থিতি ভক্তদের মনে শঙ্কা তৈরি করেছে। তাদের আশা খুব দ্রুতই সুস্থ হয়ে মাঠে ফিরবেন প্রিয় তারকা।

রোনালদোকে ছাড়া খেলতে নেমে ভালোই সূচনা করেছিল আল-নাসর। এ দিন মাত্র ৪ মিনিটের সময়ে আল-নাসর গোল পেয়েছিল সাদিও মানের কল্যাণে। তবে খেলার ৪৭ মিনিটে সেই গোল শোধ করেন আল-ইত্তিফাকের ফরোয়ার্ড রবিন কোয়েসন। আর ৫৩ মিনিটে জয়সূচক গোলটি করেন ক্লাবটির স্ট্রাইকার মুসা দেম্বেলে। শেষ পর্যন্ত আর কোনো গোল না হওয়ায় ২-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইত্তিফাক।

ছবি: সংগৃহীত

দিনের অন্যম্যাচে, আল ইত্তিহাদ এদিন প্রতিপক্ষের মাঠে আধিপত্য বিস্তার করে খেলেছে। বলের দখল থেকে শুরু করে আক্রমণ সবখানেই এগিয়ে ছিল বেনজেমা-কান্তেরা। তারপরও গোলের জন্য দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়েছে আল-ইত্তিহাদকে।

গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধে ডেডলক ভাঙেন আব্দের রাজাক। ম্যাচের ৫৮ মিনিটে দারুণ এক গোলে আল-ইত্তিহাদকে এগিয়ে দেন এই সৌদি উইঙ্গার।

এই গোলের পর  আল-ইত্তিহাদের আক্রমণের ধার বাড়ে আরও। ৭৩ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ইগর করনাডো। গোটা ম্যাচেই দারুণ খেলা এই ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার এদিন জোড়া গোল করেন। ৭৯ মিনিটে ব্যক্তিগত দ্বিতীয় ও দলীয় তৃতীয় গোলটিও আসে তার পা থেকে।

এদিন বেশ কয়েকবার সুযোগ পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হন আল ইত্তিহাদের ফরাসি স্ট্রাইকার করিম বেনজেমা। রিয়ালের সাবেক এই তারকা গোল না পেলেও দলের প্রথম গোলটিতে সহায়তা করে জয়ে অবদান রাখেন। তার পাস থেকেই আব্দের রাজাক প্রথম গোলটি করেন।

Link copied!