• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১,

আগুনে শেষ পুরো পরিবার


সংবাদ প্রকাশ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: মার্চ ১, ২০২৪, ০৯:৩২ এএম
আগুনে শেষ পুরো পরিবার
স্বামী ও দুই সন্তানসহ নাজিয়া আক্তার। ছবি : সংগৃহীত

দুই শিশুসন্তানের কান্না থামাতে তাদের বেইলি রোডের একটি রেস্টুরেন্টে খেতে নিয়েছিলেন মা নাজিয়া আক্তার (৩১)। কিন্তু আগুনে পুড়ে মারা যান নাজিয়া ও তার দুই সন্তান আয়ান (৮) ও আয়াত (৬)।

নাজিয়ার আত্মীয় রিফাত হোসেন ঘটনার সময় ওই ভবনের সামনে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিচ্ছিলেন। তিনি জানান, হঠাৎ ভবনটির নিচতলায় বিস্ফোরণের বিকট শব্দ শুনতে পান। মুহূর্তের মধ্যে আগুন ওপরের দিকে ছড়িয়ে পড়ে। পরে তৃতীয় সিঁড়ি থেকে আয়ানের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। আগুনে মারা গেছেন নাজিয়া এবং আয়াতও। ঢাকা মেডিকেলের মর্গে তাঁদের মরদেহ রাখা হয়েছে।

নাজিয়ার স্বামী মো. আশিক পেশায় ব্যবসায়ী। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তিনি ব্যবসার কাজে বনানীতে যান। আগুন লাগার সঙ্গে সঙ্গে নাজিয়া স্বামীকে ফোন দিয়ে বলেন তাঁরা বিপদে আছেন।

বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১০টার দিকে ভবনটিতে আগুন লাগে। আগুন নেভানোর পর হতাহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নেওয়া হয়।

রাত দুইটার দিকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন সাংবাদিকদের বলেন, এ ঘটনায় ৪৩ জন নিহত হয়েছেন। তাঁদের মরদেহ এই দুই হাসপাতালে আছে। এর বাইরে আরও মৃত ব্যক্তি থাকতে পারে।

এ ঘটনায় গুরুতর আহত ৮ জন বার্ন ইনস্টিটিউটে এবং ১৪ জন ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন বলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান। তিনি বলেন, তাঁদের সবার অবস্থাও আশঙ্কাজনক।
 

Link copied!