• ঢাকা
  • রবিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১, ৪ শাওয়াল ১৪৪৫

খেলা হবে দুর্নীতি আর ভোট চুরির বিরুদ্ধে : ওবায়দুল কাদের


সংবাদ প্রকাশ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২, ২০২৩, ০৫:৩১ পিএম
খেলা হবে দুর্নীতি আর ভোট চুরির বিরুদ্ধে : ওবায়দুল কাদের
ফাইল ছবি

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, খেলা হবে দুর্নীতির বিরুদ্ধে, খেলা হবে ভোট চুরির বিরুদ্ধে। তিনি বলেন, “খেলা হবে দুর্নীতির বিরুদ্ধে, দুশাসনের বিরুদ্ধে, লুটপাটের বিরুদ্ধে। আগামী দ্বাদশ নির্বাচন হবে ফ্রী এন্ড ফেয়ার।” 

শনিবার (২সেপ্টেম্বর) এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে উদ্বোধন পরবর্তী পুরনো বাণিজ্য মেলার মাঠে আয়োজিত সুধী সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ কন্যা ও প্রধানমন্ত্রীর ছোট বোন শেখ রেহানা। 

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, “খেলা হবে বিএনপির বিরুদ্ধে, আগুন সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে, ভোট চুরির বিরুদ্ধে, ভুয়া ভোটারদের বিরুদ্ধে, তৈরি হয়ে যান, প্রস্তুত হয়ে যান, জবাব দেবো।”

তিনি বলেন, “বিএনপি আরেকবার ক্ষমতায় আসলে বিদেশি ঋণ, গণতন্ত্র, নির্বাচন গিলে খাবে। সুযোগ পেলে বাংলাদেশকেও গিলে খাবে। বিএনপি নেতারা আন্দোলনের ডাক দিয়ে ঘরে বসে হিন্দি সিরিয়াল দেখে। আর ফোন করে খোঁজ নেয় পুলিশের গতিবিধি। দেশের জনগণ এখন আন্দোলন মুডে নেই, তারা নির্বাচন মুডে আছে। তারা হচ্ছে রাজনীতিতে কাপুরুষ।”

তিনি আরও বলেন, “বিদেশিদের কাছে নালিশ এখন বিএনপির পুঁজি, মন্তব্য করে সড়কমন্ত্রী বলেন, “এরা (বিএনপি) শুধু ইস্যু খুঁজে। ইস্যু খুঁজতে খুঁজতে শিশুদের নিরাপদ সড়কের আন্দোলনে ভর করে ক্ষমতা যাওয়ায় চোরাই পথ আবিষ্কার করতে চেয়েছে। এখানে সুবিধা করতে না পেরে তাদের সাম্প্রদায়িক দোষরদের দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে অপপ্রচার চালানোর নীল নকশা করেছে।”

ওবায়দুল কাদের বলেন, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণীই ছিলেন না, তিনি ছিলেন বঙ্গবন্ধুর সার্বক্ষণিক রাজনৈতিক সহযোদ্ধা।” তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালির দীর্ঘ মুক্তিসংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্ব দিয়ে শুধু বাঙালির জাতির পিতা আর বাংলাদেশের স্রষ্টাই হননি, তিনি হয়ে উঠেছিলেন বিশ্ববরেণ্য রাজনীতিবিদ ও রাষ্ট্রনায়ক। আর এর পেছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন তাঁরই সহধর্মিণী ও বাঙালির মুক্তিসংগ্রামের সহযোদ্ধা বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব। জাতির পিতার আমৃত্যু সঙ্গী মহীয়সী নারী, দেশের স্বাধীনতাসহ সব গৌরব অর্জনের নেপথ্য প্রেরণাদাত্রী বঙ্গমাতা মুজিব।”

সুধী সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। এছাড়াও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস ও উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম, ঢাকা-১৮ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান। 

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সভাপতিত্বে সুধী সমাবেশে যোগ দিয়েছেন সরকারের প্রায় সব মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রীরা। এছাড়া সরকারের সচিব ও বিভিন্ন পর্যায়ের আমলারাও এই সমাবেশে অংশ নিয়েছেন। একই সঙ্গে ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের প্রকল্প পরিচালক সাখাওয়াত হোসেনসহ সংশ্লিষ্টরা যোগ দেন।

Link copied!