• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৩ মে, ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,
ঘূর্ণিঝড় মোখা

ভারতের তিনটি রাজ্যে ‘কমলা’ সতর্কতা জারি


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: মে ১২, ২০২৩, ১১:১৩ এএম
ভারতের তিনটি রাজ্যে ‘কমলা’ সতর্কতা জারি

দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে থাকা গভীর নিম্নচাপটি উত্তর ও উত্তর–পশ্চিম দিকে অগ্রসর ও ঘনীভূত হয়ে প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’য় পরিণত হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়টি শক্তি বাড়িয়ে এগিয়ে আসছে উপকূলের দিকে। কক্সবাজার এবং মিয়ানমার উপকূলে আঘাত হানতে পারে এই ঘূর্ণিঝড়।

ভারতে ঘূর্ণিঝড়টির সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়বে উত্তর-পূর্ব তিনটি রাজ্য মিজোরাম, মণিপুর ও ত্রিপুরায়। এ কারণে এই তিন রাজ্যে ‘কমলা’ সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

শুক্রবার (১২ মে) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি ও আনন্দবাজার পৃথক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে। দেশটির আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, দেশটিতে মোখার সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়বে মিজোরাম, মণিপুর ও ত্রিপুরা রাজ্যে। এই তিন রাজ্যেই বাংলাদেশ ও মিয়ানমার সীমান্তের কাছে। ওই রাজ্যগুলোতে ভারী বৃষ্টির সঙ্গেই ঝোড়ো হাওয়া বইবে। সেখানে ৫৫ থেকে ৬৫ কিলোমিটার গতিতে বাতাস বইতে পারে।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ইতোমধ্যেই ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস জারি করা হয়েছে আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে। শুক্র, শনি ও রোববার সেখানে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হওয়ার পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস। শনি ও রোববার ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে ত্রিপুরা, মিজোরামেও। এ ছাড়া রোববার নাগাল্যান্ড, মণিপুর, দক্ষিণ আসামেও ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে।

এদিকে দেশটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গে ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্স (এনডিআরএফ) এর ৮টি দল এবং ২০০ উদ্ধারকারী মোতায়েন করা হয়েছে। এ ছাড়া ভারতীয় কোস্টগার্ড সতর্ক রয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় এই ঘূর্ণিঝড় দক্ষিণ-পূর্ব বাংলাদেশ এবং উত্তর মিয়ানমার উপকূলে আঘাত হানতে চলেছে বলেও পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে।

কমলা সতর্কতা হলো, আবহাওয়া পরিবর্তনের ফলে উদ্ভূত যেকোনো জরুরি পরিস্থিতির জন্য নাগরিকদের ‘প্রস্তুত থাকতে’ হবে।

Link copied!