• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১, ১৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

‘হিন্দু নামধারী’ মুসলিম যুবককে মারধোর, উত্তাল মধ্যপ্রদেশ


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: আগস্ট ২৩, ২০২১, ০২:০৫ পিএম
‘হিন্দু নামধারী’ মুসলিম যুবককে মারধোর, উত্তাল মধ্যপ্রদেশ

ভারতে ২৫ বছর বয়সী মুসলিম চুড়ি বিক্রেতাকে মারধোর করার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালী হিন্দুদের বিরুদ্ধে। রবিবার মধ্যপ্রদেশের এই ঘটনা রাজ্যের পাশাপাশি ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে সামাজিক মাধ্যমে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরে এক চুড়ি বিক্রেতাকে মারধোর করে তাঁর কাছ থেকে ১০ হাজার রুপি ছিনিয়ে নেওয়া হয়। এ ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে শত শত মানুষ থানার বাইরে বিক্ষোভ করেন। বিক্ষভকারীদের চাপের মুখে রাতে মামলা নিতে বাধ্য হয় পুলিশ।

সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, তসলিম নামে এক যুবককে ইন্দোরের বনগঙ্গা এলাকার মারধর করছেন একদল ব্যক্তি। আক্রমণকারীরা ধর্মীয় স্লোগান দিয়ে তাকে গালিগালাজ করতে থাকেন। এসময় হামলার শিকার যুবকের সাহায্যে কেউ এগিয়ে আসেনি।

ঘটনার সময় মারধোরকারীদের একজন আক্রান্ত যুবকের ব্যাগ থেকে চুড়ি বের করে বলেন, “ওর কাছে যা আছে সব ছিনিয়ে নিন। একে যেন এই এলাকায় আর না দেখি।” 

এরপর পেছন থেকে আরেক ব্যক্তি যুবকের টি-শার্ট টেনে ধরে বাকিদের মারতে আহ্বান জানালে আরও তিন চারজন লোক জড়ো হয়ে তাকে নির্মমভাবে মারধোর করে।

পুলিশের কাছে অভিযোগে ভুক্তভোগী জানান, “অভিযুক্তরা প্রথমে আমার নাম জিজ্ঞাসা করে। নাম বলার পরই তারা আমাকে মারধর শুরু করে। তারা আমার কাছে থাকা ১০ হাজার রুপি ছিনতাই করেছে। এছাড়াও আমার সঙ্গে থাকা চুড়ি ও অন্যান্য সামগ্রী ভাঙচুর করে তারা।”

এ ঘটনায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে দাঙ্গা, ডাকাতি ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টের অভিযোগে মামলা করা হয়েছে। 

তবে রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নরোত্তম মিশ্রের দাবি, “হিন্দু নাম ব্যবহার করে ব্যবসা করার কারণেই তাকে মারধোর করেছে স্থানীয়রা। তার কাছ থেকে ভুয়া নাম ব্যবহার করা দুটি আধার কার্ড উদ্ধার করা হয়েছে।”

ভিডিও থেকে অভিযুক্তদের চিহ্নিত করে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তা আশুতোষ বাগারি। সামাজিক মাধ্যমের গুজবে কান না দিতে সবার প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে তিনি।

Link copied!