• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১, ১২ মুহররম ১৪৪৫

শ্রীলঙ্কায় বিক্ষোভে গুলি চালানো পুলিশকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: এপ্রিল ২৮, ২০২২, ০৪:১৮ পিএম
শ্রীলঙ্কায় বিক্ষোভে গুলি চালানো পুলিশকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ

শ্রীলঙ্কায় জনগণের বিক্ষোভে গুলি চালিয়ে একজনকে হত্যার ঘটনা ব্যপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত পুলিশ অফিসারকে গ্রেপ্তার করতে পুলিশের মহাপরিদর্শককে নির্দেশ দিয়েছেন শ্রীলঙ্কার হাইকোর্ট।

পুলিশের মুখপাত্র নিহাল থালজুয়ার বরাতে বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) এ খবর জানিয়েছে সিলন টুডে।

এর আগেই রামনুক্কানায় বিক্ষোভের মধ্যে গুলি চালানোর সঙ্গে জড়িত সকল পুলিশ সদস্যকে আইনের আওতায় আনার নির্দেশ দিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার পুলিশ প্রধান। ঘটনায় জড়িত পুলিশের সদস্যদের গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণের নির্দেশ দেন তিনি।

চরম অর্থ সংকটে ধুঁকতে থাকা শ্রীলঙ্কায় প্রায় এক মাসের বেশি ধরে বিক্ষোভ চলছে। তেল সংকট নিয়ে মার্চের ১৯ তারিখ প্রায় রামবুক্কানা শহরে টানা ১৫ ঘণ্টা ধরে আন্দোলন করেন বিক্ষোভকারীরা। তারা শহরে প্রবেশ ও বের হওয়ার পথ অবরুদ্ধ করে। এছাড়া ট্রেন চলাচলও বন্ধ করে দেওয়া হয়।

বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করে পুলিশ। পরে একটি তেলের ডিপোতে আগুন দেওয়ার চেষ্টার ঘটনায় বিক্ষোভে গুলি চালায় বলে দাবি করে পুলিশ। সে সময় পুলিশের একজন নিহত হন। আহত হন ৩০ জন।

দক্ষিণ এশিয়ার ২ কোটি ২০ লাখ জনসংখ্যার দেশটি ১৯৪৮ সালে স্বাধীন হওয়ার পর থেকে সবচেয়ে ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকটে পড়েছে। বিদেশ থেকে পণ্য আমদানির জন্যও প্রয়োজনীয় বৈদেশিক মুদ্রারও ঘাটতি রয়েছে।

দেশটি বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে আছে। বিক্ষোভ দমনে কয়েক দফা কারফিউ ও জরুরি অবস্থা জারি করে সরকার। যদিও এসব নিষেধাজ্ঞা ধাপে ধাপে উঠিয়ে নেওয়া হয়েছে।

এদিকে আগামী ছয় মাসের জন্য ৩০০ কোটি ডলার বৈদেশিক সহায়তা চেয়েছে চরম অর্থসংকটে থাকা শ্রীলঙ্কা। জ্বালানি, ওষুধসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের সরবরাহ পুনরুদ্ধার করতে এ সহায়তা প্রয়োজন বলে জানান শ্রীলঙ্কার অর্থমন্ত্রী আলী সাবরি। যদিও সহায়তার পাওয়ার বিষয়ে এখনো কিছু জানা যায়নি।

২০১৯ সাল থেকে রাজাপাকসে ও তার পরিবারের সদস্যরা দেশটির প্রশাসনে রয়েছে। কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকট মোকাবেলা করছে দক্ষিণ এশিয়ার দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কা। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিসহ নানা অনিয়মের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে চলছে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ।

Link copied!