• ঢাকা
  • শনিবার, ১৩ জুলাই, ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১, ৬ মুহররম ১৪৪৫

ফের তানজিন তিশা-পরীমনির দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: জুন ১৩, ২০২৪, ০১:১৪ পিএম
ফের তানজিন তিশা-পরীমনির দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে
তানজিন তিশা- পরীমনি। ছবি: কোলাজ

আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনি ও রাজের দাম্পত্য কলহের মধ্যে রাজের ফেসবুক থেকে তানজিন তিশা ও সুনেরাহ বিনতে কামালের একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়। সেই ঘটনা চারদিকে হইচই পড়ে যায়। অনেকেই ভিডিও ফাঁসের ঘটনায় পরীমনিকে সন্দেহ করেন, যা নিয়ে তিশার সঙ্গে পরীর সম্পর্কের অবনতি ঘটে। এর পর থেকেই তাঁদের কথা বলা বন্ধ।

তবে গত শুক্রবার একটি ফ্যাশন শোতে অংশ নিয়ে নতুন করে আলোচনার কেন্দ্রে পরী। সেই শোতে শোবিজ অঙ্গনের বেশ কয়েকজন নায়িকার সঙ্গে র‌্যাম্পে হাঁটেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের নায়ক শাকিব খান।

পরীমনি ছাড়াও এই আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন তানজিন তিশা , বিদ্যা সিনহা মিম, পূজা চেরী, ও সাবিলা নূর। একঝাঁক নায়িকাকে নিয়ে র‌্যাম্পে হেঁটে যখন আলোচনায় শাকিব, ঠিক তখনই ভিন্নভাবে আলোচিত পরীমনি,তানজিন তিশাও মিম।

দুই বছর আগে শরীফুল রাজের সঙ্গে জড়িয়ে মিমকে নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে স্ট্যাটাস দেন পরী। সেই থেকেই দুজনের দ্বন্দ্ব। জানা গেছে, শুক্রবারের ফ্যাশন শোতে পরী ও মিমের মধ্যে দ্বন্দ্ব নাকি মিটে গেছে। গণমাধ্যমে মিমের দেওয়া বক্তব্যের পর তাঁর কাছে ক্ষমা চাওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন পরী। এ নিয়ে যখন চর্চা তুঙ্গে, ঠিক তখনই সবার দৃষ্টি তানজিন তিশার দিকে।

পরী ও মিমের দ্বন্দ্বের প্রায় একই সময়ে একটি ভিডিওকে কেন্দ্র করে নিয়ে তানজিন তিশার সঙ্গেও পরীমনির সম্পর্কের অবনতি ঘটে। কিন্তু শুক্রবারের অনুষ্ঠানে নাকি তিশার সঙ্গেও কথা বলার চেষ্টা করেছেন পরী।

বিষয়টি নিয়ে তিশা জানান, ‘তার সঙ্গে দ্বন্দ্ব মিটমাটের কী আছে? আমার তো তার সঙ্গে কথা বলার দরকার নেই। সে বিগত দিনে সামাজিকভাবে আমাদের কয়েকজনকে যেভাবে অপদস্থ করেছে, তা ভোলার নয়। সুতরাং তার সঙ্গে কথা বলা বা মেলামেশার কোনো দরকার নেই। তবে ওই মঞ্চের পেছনে সে এসে আমার হাত ধরেছিল। তখন হাই-হ্যালো না বলার কিছু নেই।’

এই প্রসঙ্গে গণমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পরী বলেন, ‘সেদিন মঞ্চে ওঠার সময় খেয়াল করলাম, সিঁড়ি দিয়ে নামতে গিয়ে একেবারে পড়ে যায় যায় অবস্থা তিশার। তখন আমি এগিয়ে গিয়ে তার পড়ে যাওয়া ঠেকাই। একটা মানুষ এমন করে পড়ে যাচ্ছে দেখে যে কেউই এগিয়ে যাবে, তো আমিও সেটা করেছি। এর চাইতে বেশি কিছু নয়।’


পরীমনি আরও বলেন, ‘আমি যখন তিশার হাত ধরে তার পড়ে যাওয়া ঠেকাই, তখন সে আমাকে দেখে অনেকটা ভড়কে যায়। তখন সৌজন্য দেখিয়ে তিশাকে বলি, “তুমি ঠিক আছো তো?” জাস্ট এটুকুই, তাৎক্ষণিক তাকে সামলেই আমি মঞ্চে উঠে যাই। এখন এ ঘটনার চার দিন পর এসে শুনছি, আমি নাকি তিশার হাত ধরে কথা বলার চেষ্টা করেছি। আজব!’

পরীমনি অভিযোগ করে আরও বলেন, ‘ঘটনার চার দিন পর এগুলোকে ভিন্ন খাতে নেওয়ার চেষ্টা করছেন অনেকে। নিশ্চয়ই তাঁদের অন্য উদ্দেশ্য আছে। সেদিনের অনুষ্ঠান কেন্দ্র করে দু-একজনের ভিন্ন ভিন্ন দাবি আমার কাছে হাস্যকর লাগে। ভবিষ্যতে তাঁদের বিষয়ে আরও বেশি সতর্ক থাকব।’

 

Link copied!