• ঢাকা
  • রবিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১, ৪ শাওয়াল ১৪৪৫

ডাকাতি করতে গিয়ে ধরা, দুইজনের চোখ নষ্ট করে দিলেন গ্রামবাসী


মাদারীপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত: অক্টোবর ১, ২০২৩, ১০:৫৬ এএম
ডাকাতি করতে গিয়ে ধরা, দুইজনের চোখ নষ্ট করে দিলেন গ্রামবাসী

মাদারীপুরের কালকিনিতে ডাকাতি করে পালানোর সময় দুইজনকে আটক করে গণপিটুনি দিয়েছেন গ্রামবাসী। এসময় উত্তেজিত জনতা আটক দুই ডাকাতের চোখ নষ্ট করে দেয়।

শনিবার (৩০) রাত ২টার দিকে উপজেলার শিকারমঙ্গল ইউনিয়নের মৃধাকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ এসে আহত ডাকাতদের উদ্ধার করে কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

আটক দুই ডাকাত হলেন বরিশালের মুলাদি উপজেলার টুমচর বাটামারা এলাকার তৈয়ব আলী হাওলারের ছেলে দাদন হাওলাদার  (৪৫) এবং একই এলাকার মোতালেব হাওলাদারের ছেলে সোহরাব হাওলাদার (৫০)।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাত ২টার দিকে শিকারমঙ্গল ইউনিয়নের মৃধাকান্দি এলাকার সেকান্দার হাওলাদারের বাড়িতে ১০-১৫ জনের একদল মুখোশ পরা ডাকাত ঘরে প্রবেশ করে। তারা ঘরের লোকেদের জিম্মি করে মূল্যবান জিনিসপত্র লুটপাট করে পালিয়ে যাচ্ছিলেন। বিষয়টি স্থানীয়রা টের পেয়ে ডাকাত দলকে ধাওয়া করেন। এ সময় তারা দাদন হাওলাদার ও সোহরাব হাওলাদারকে আটক করেন। পরে উত্তেজিত জনতা দুই ডাকাতকে গণপিটুনি দিয়ে তাদের দুজনের চোখ নষ্ট করে ফেলে। পরে পুলিশ বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে গিয়ে দুই ডাকাতকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় চিকিৎসক তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. সাইদুল ইসলাম বলেন, দুইজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় নিয়ে আসা হয়েছিল। তাদের দুইজনের চোখেই গভীর ক্ষত রয়েছে। তাই উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হাসান বলেন, “৯৯৯-এ ফোন পেয়ে আহত দুইজন ডাকাতকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি তারা ডাকাতির উদ্দেশ্যে এসেছিল। পরে তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়। এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

Link copied!