• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৮ মে, ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪৫

‘আনপ্রেডিক্টেবল’ পাকিস্তানের জয়, সৌজন্যে ফখর জামান


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: এপ্রিল ৩০, ২০২৩, ০২:১৪ পিএম
‘আনপ্রেডিক্টেবল’ পাকিস্তানের জয়, সৌজন্যে ফখর জামান

নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ ৩৩৬ রান। এই রানে হারের আগেই হেরে বসার কথা পাকিস্তানের। কিন্তু পাকিস্তান ম্যাচ জিতে নিলো ১০ বল হাতে রেখেই। ৭ উইকেটের এই জয় সৌজন্যে ফখর জামান। এমনিই তো আর পাকিস্তানের দলের সঙ্গে ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ শব্দ জুড়ে বসেনি।

পাঁচ ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে টস জিতে পাকিস্তান প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয়। যদি ইনিংসের শুরুটা ভালো করেনি কিউইরা। মাত্র ৩৩ রানে ওপেনার উইল ইয়ংয়ের উইকেট হারায় তারা। তবে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে হাল ধরেন চাদ জেসন বোয়েস ও ড্যারেল মিচেল। তারা দুজন দলীয় রান শতরান পার করান। দলের ১১৯ রানে চাদ ৫১ রানে আউট হন। 

তার বিদায়ের পর মিচেল ও টম ল্যাথাম জুটি ভয়ংকর হয়ে ওঠে। পাকিস্তানি বোলারদের একপ্রকার পাত্তা না দিয়ে এই জুটি মারমুখী হয়ে খেলতে থাকে। দলীয় ৩০২ রানে ভাঙে এই জুটি। মিচেল ১১৯ বলে ১২৯ রানে আউট হন।

ল্যাথামও অবশ্য পরপরই বিদায় হন। তবে শতরান থেকে মাত্র ২ রান দূরে থাকতে তাকে বিদায় হতে হয় হারিস রউফের বলে। বাকি ব্যাটাররা তেমন সুবিধা আদায় করতে না পারলে নিউজিল্যান্ডের ইনিংস থামে ৫ উইকেটে ৩৩৬ রানে। 

জবাবে ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনার ফখর জামান ও ইমাম-উল-হক দুর্দান্ত শুরু করেন। তারা দুজন দলীয় রান ফিফটি পার করান। দলীয় ৬৬ রানে ইমাম-উল-হক মাত্র ২৪ রানে ফেরেন।

ফখর এবার অধিনায়ক বাবর আজমকে নিয়ে দলের হাল ধরেন। এই জটি দলীয় রান ২০০ পার করেন। দলের ২০১ রানে অধিনায়ক ৬৬ বলে ৬৫ রান করে ফেরেন। অল্প রানের ব্যবধানে ফেরেন আব্দুল্লাহ শফিকও। ফখরকে এবার সঙ্গ দেন মোহাম্মদ রিজওয়ান। এই জুটি অপরাজিত থেকে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়েন।

ফখর অবিশ্বাস্য ইনিংস উপহার দেন। তার ইনিংসে তিনি টি-টোয়েন্টি সংস্করণের গতিতে রান তোলেন। মাত্র ১৪৪ বলে ১৮০* রানের ইনিংস উপহার দেন তিনি। রিজওয়ান ৪১ বলে ৫৪* রানের ইনিংস খেলে দলের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন।

মাত্র ৪৮.২ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় পাকিস্তান। পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে রইলো বাবর আজমরা।

 

 

 

Link copied!