• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯
সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ লাইভ

নেপালকে হারিয়ে শিরোপা এখন বাংলাদেশের


সংবাদ প্রকাশ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২২, ০৪:৪২ পিএম
নেপালকে হারিয়ে শিরোপা এখন বাংলাদেশের

ছয় আসরের পাঁচটিতেই শিরোপা জিতেছিল ভারত। ৬ষ্ঠবার আর শিরোপা জেতা হয়নি ভারতের। শিরোপা জিতেছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের হয়ে শামসুন্নাহার জুনিয়র একটি ও কৃষ্ণা রানী সরকার দুইটি গোল করেছেন। সর্বশেষ ২০১৯ সালে বাংলাদেশ ফুটবলে এসেছিল বড় সাফল্য। সেবার সাফ চ্যাম্পিয়শিপে শিরোপা জিতেছিল বাংলাদেশের ছেলেরা। ২০০৫ সালেও শিরোপা জয়ের কাছাকাছি গিয়েছিল তারা। তবে এবার সেবার ফাইনালে হেরে স্বপ্ন ভেঙেছিল আলফাজ-আমিনুলদের।

সময়- ৭ টা ১৫ মিনিট

নেপালকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জিতলো বাংলাদেশ। নেপালকে তাদের মাঠে ৩-১ গোলে হারিয়েছে গোলাম রব্বানি ছোটনের শিষ্যরা।

সময়- ৬ টা ৪১ মিনিট

অনিতা বাসনেটের গোলে ব্যবধান কমিয়েছে নেপাল। দশরথ রঙ্গশালায় আবারো ম্যাচে ফেরার চেষ্টায় আছে নেপাল।

সময়- ৬টা ৩৮ মিনিট

কাঠমুন্ডুর দশরথ রঙ্গশালায় নেমেছে বৃষ্টি। কর্দমাক্ত মাঠে যুক্ত হওয়া বৃষ্টির কারণে বেশ কঠিনই হয়ে পড়েছে খেলা। ২-০ গোলে এগিয়ে থাকায় সুবিধাজনক অবস্থায় আছে বাংলাদেশ।

সময়- ৬ টা ২৮ মিনিট

ম্যাচে বাংলাদেশের দ্বিতীয় পরিবর্তন করেছে বাংলাদেশ কোচ গোলাম রাব্বানি ছোটন। বদলি হিসেবে মাঠে নেমেছেন ঋতুপর্না চাকমা। সানজিদা আখতারের বদলি হয়েছেন তিনি। টুর্নামেন্টে এই নিয়ে তৃতীয়বারের মতো বদলি হিসেবে নেমেছেন তিনি।

সময়- ৬ টা ২১ মিনিট

দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরু হয়েছে। দুই গোলের লিডে দ্বিতীয়ার্ধ শুরু করেছে বাংলাদেশ দল। মাঠে নেমেছেন সাবিত্রা ভাণ্ডারি।

সময়- ৬ টা ০২ মিনিট

প্রথমার্ধে নেপালের জালে দুইবার বল জড়িয়েছে বাংলাদেশ। দুই গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের হয়ে গোল করেছেন শামসুন্নাহার জুনিয়র ও কৃষ্ণা রাণী। প্রথম গোল বাংলাদেশ নিজ যোগ্যতায় পেলেও দ্বিতীয় গোলে ছিল নেপালের অবদান। তাদের ভুলে ম্যাচে দ্বিতীয়বারের মতো বল জড়িয়েছিল বাংলাদেশ।

ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে নিজেদের ছন্দ ধরে রাখতে পারলে শিরোপা উঁচিয়ে ধরা সময়ের ব্যবধান মাত্র।

সময়- ৫ টা ৫৬ মিনিট

সাবিনা খাতুনের পাসে নেপালের জালে বল জড়িয়েছেন কৃষ্ণা রানী সরকার। ম্যাচের ৪২তম মিনিটে দ্বিতীয় গোলে লিড পেল বাংলাদেশ। গোলের কৃতিত্ব বাংলাদেশের নয়, ভুল পাসে সাবিনা খাতুনের পাস থেকে গোল করেছেন কৃষ্ণা। টুর্নামেন্টে এটা কৃষ্ণার তৃতীয় গোল।

সময়- ৫ টা ৪৫ মিনিট

আক্রমণ-প্রতি আক্রমণে এগিয়ে যাচ্ছে ম্যাচ। কাঠমণ্ডুর দশরথ রঙ্গশালার কর্দমাক্ত মাঠ খেলার গতি কমিয়ে দিয়েছে। এই টুর্নামেন্টের সবগুলো ম্যাচই আয়োজিত হয়েছে এই মাঠে।

সময়- ৫ টা ২৯ মিনিট

মাঠে নামার পাঁচ মিনিটের মাথায় বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়েছেন শামসুন্নাহার জুনিয়র। সিরাত জাহান স্বপ্নার বদলি হিসেবে মাঠে নেমেছেন তিনি।

সময়- ৫ টা ২৫ মিনিট

ম্যাচে প্রথম বদলি করেছে বাংলাদেশ। সিরাত জাহান স্বপ্নার বদলি হিসেবে মাঠে নেমেছেন শামসুন্নাহার জুনিয়র। ইনজুরি নিয়েই ফাইনালে খেলতে নেমেছিলেন সিরাত জাহান স্বপ্না। সাফের ৬ষ্ট আসরের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা স্বপ্না।

সময়- ৫ টা ১৫ মিনিট

কাঠমুণ্ডুর দশরথ রঙ্গশালায় শুরু হয়েছে বহুল প্রতিক্ষিত সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল। দ্বিতীয়বারের এই টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলছে বাংলাদেশ। এর আগে ২০১৬ সালে শিলিগুড়িতে টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলেছিল সাবিনারা। নেপাল খেলছে তাদের পঞ্চম সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল।

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হওয়ায় বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলতে পারবেন না নেপালের তারকা ফুটবলার সবিত্রা ভাণ্ডারি। জাতীয় দলের হয়ে ৪০ গোল করা এই ফুটবলার না থাকা বাংলাদেশের জন্য হবে বাড়তি সুবিধা।

সময়- ৫ টা ০০ মিনিট

এসএ গেমস, সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ ও অলিম্পিক বাছাইপর্ব মিলিয়ে ৮ বার নেপালের মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ। ৮ বারের দেখায় একবারও জয় পায়নি বাংলাদেশ। দুই ড্রয়ের বিপরীতে বাংলাদেশের হার ৬ বার। এবার জয়ের ধারা খুলতে পারলে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ট্রফিটা উঠবে বাংলাদেশের মেয়েদের হাতে।

ম্যাচ প্রিভিউ

দ্বিতীয়বারের মতো সাফের ফাইনালে নেমেছে বাংলাদেশ। লাল সবুজের প্রতিনিধিদের সামনে এবার তাদের প্রতিপক্ষ স্বাগতিক নেপাল। সেমি-ফাইনালে ভুটানকে ৮-০ গোলে হারিয়েছে সাবিনা-সানজিদারা। বিপরীতে নেপাল হারিয়েছে আগের পাঁচ আসরের চ্যাম্পিয়ন ভারতকে।

২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে খেলেছিল। শিলিগুড়ি সাফে ফাইনালে ভারতের কাছে ৩-১ গোলে হেরেছিল লাল সবুজের প্রতিনিধিরা। এবার সেই হারের ক্ষত ভুলে শিরোপা জয়ের প্রত্যয়ে মাঠে নামবে সানজিদা-সাবিনারা।

সাফের ফাইনালে ওঠার আগ পর্যন্ত চার ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ ও নেপাল। এই সময়ে প্রতিপক্ষের জালে ২০ গোল করেছে বাংলাদেশ। নেপাল করেছে ১১ গোল। পুরো টুর্নামেন্টে প্রতিপক্ষের কোনো ফুটবলারই এই ম্যাচে বাংলাদেশের জালে ঢুকাতে পারেনি কোনো গোল। এই ম্যাচেও জাল অক্ষত রাখতে পারলে শিরোপা উঠবে বাংলাদেশের ঘরে। এমনটাই প্রত্যাশা সবার।

Link copied!