• ঢাকা
  • রবিবার, ২১ জুলাই, ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৪ মুহররম ১৪৪৫

আশা জাগিয়েও ইয়াসিরের বিদায়, ফের বিপদে টাইগাররা


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: এপ্রিল ১০, ২০২২, ০৪:০৭ পিএম
আশা জাগিয়েও ইয়াসিরের বিদায়, ফের বিপদে টাইগাররা
ছবি সংগৃহীত

পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টের দ্বিতীয় দিন ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলা বাংলাদেশ দল তৃতীয় দিনের শুরু থেকে ইতিবাচক ভঙ্গিতে খেলতে থাকে। ফলে দক্ষিণ আফ্রিকান বোলারদের ওপর বাড়তি চাপ সৃষ্টি করছিলেন অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিম ও ইয়াসির আলি রাব্বি। বৃষ্টির কারণে ২০ মিনিট দেরিতে খেলা শুরুর হলে প্রথম তিন বলেই হ্যাটট্রিক বাউন্ডারি হাঁকান ইয়াসির রাব্বি। তার সঙ্গে দারুণভাবে দাঁড়িয়ে সঙ্গ দিচ্ছিলেন মুশফিকও।

এ দুজনের ৭০ রানের জুটি বাংলাদেশ শিবিরে স্বস্তি এনে দিয়ে বেশ ভালোভাবেই এগোচ্ছিল টাইগাররা। কিন্তু দলীয় ১৯২ রানের মাথায় স্পিনার কেশব মহারাজের বলে সাজঘরে ফিরে যান ইয়াসির আলী। ফলে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টেস্ট ফিফটি থেকে মাত্র ৪ রান দূরে থাকতেই এই ব্যাটার বোলার মহারাজের হাতে ক্যাচ দেন। দিনের প্রথম উইকেট হারালেও ইয়াসিরের বিদায়ে ফের বিপদে পড়েছে মুমিনুল হকের দল।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশ ৬৫ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৯৯ রান তুলেছে। এর আগে স্বাগতিকরা প্রথম ইনিংসে ৪৫৩ রানে অলআউট হয়েছে। ফলে এখনও ২৫৪ রানে পিছিয়ে বাংলাদেশ। এছাড়া ফলোঅন এড়াতেও করতে হবে আরও ৫৫ রান।


রোববার (১০ এপ্রিল) পোর্ট এলিভাবেথের সেন্ট জর্জ পার্কে বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টায় শুরুর কথা ছিল। কিন্তু বৃষ্টির হানায় ২০ মিনিট দেরি করে শুরু হয় খেলা। ৫ উইকেট হারিয়ে ১৩৯ রান নিয়ে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করা বাংলাদেশ দলের ব্যাটার ইয়াসির প্রথম ওভারের প্রথম তিন বলেই তিন বাউন্ডারি হাঁকান। ফলে দিনের প্রথম পাঁচ ওভারেই এই জুটি ২৭ রান তুলে নেয়। যার মধ্যে ৬টি চারের মার মারেন মিডল অর্ডার ব্যাটার ইয়াসির। 

এদিন উড়ন্ত শুরুর পর স্বাগতিকরা টাইগারদের চাপে রাখতে বাঁহাতি স্পিনার কেশভ মহারাজকে আক্রমণে আনেন এলগার। ফলে মুশফিক-ইয়াসির জুটি দেখেশুনে ব্যাট করলে রানরেটও কমে যায়। তবু সুযোগ পেলেই উইয়ান মাল্ডার কিংবা মহারাজকে বাউন্ডারি হাঁকাতে কার্পণ্য করেননি মুশফিক বা ইয়াসির।

শেষ পর্যন্ত ইনিংসের ৬০তম ওভারে গিয়ে আঘাত হানেন মহারাজ। সেই ওভারের চতুর্থ বলে ইয়াসিরের বিপক্ষে লেগ বিফোরের জোরালো আবেদন করলে আম্পায়ার তাতে সাড়া দেননি। পরে রিভিউ নিলেও উইকেট আদায় করতে পারেনি তারা। ফলে দক্ষিণ আফ্রিকা তাদের সব রিভিউ শেষ করে ফেলে। 

কিন্তু একই ওভারের শেষ বলে অনসাইডে খেলতে গিয়ে লিডিং এজে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে বসেন ইয়াসির। বলটি তালুবন্দী করেই উল্লাসে ফেটে পড়েন মহারাজ। আউট হওয়ার আগে ৭ চারের মারে ৮৭ বলে ৪৬ রান করেন ইয়াসির। তার বিদায়ে ভাঙে ৭২ রানের ষষ্ঠ উইকেট জুটি।

ইয়াসির না পারলেও চলতি ইনিংসে বাংলাদেশের প্রথম হাফসেঞ্চুরিয়ান হওয়ার আশা বাঁচিয়ে রেখেছেন মুশফিক। তার সংগ্রহ ১০২ বলে ৪২ রান। সপ্তম উইকেট জুটিতে মুশফিককে সঙ্গে দিতে নেমেছেন অফস্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজ।

Link copied!