• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২১ জুন, ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১, ১৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

সঞ্চয়পত্র কিনছেন? জেনে রাখুন


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: জুলাই ১৪, ২০২১, ০৩:৫৯ পিএম
সঞ্চয়পত্র কিনছেন? জেনে রাখুন

সঞ্চয়পত্র কিনবেন? কোনটা কিনবেন তা নিয়ে দ্বিধায় রয়েছেন? কখন, কীভাবে সঞ্চয়পত্র কিনবেন এই বিষয়ে সুনির্দিষ্ট ধারণা রাখুন। কারণ, ধারণা না থাকলে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ঠিক করতে বেশ ভোগান্তি পোহাতে হয়। তার  আগে জানা দরকার, বাংলাদেশ সরকার কোন ধরনের সঞ্চয়পত্র কেনার সুবিধে দিচ্ছে।  

জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর সূত্র অনুযায়ী, বাংলাদেশে ৫ ধরনের সঞ্চয়পত্র রয়েছে। এসব সঞ্চয়পত্রে মেয়াদকাল ও মুনাফার পরিমাণও ভিন্ন। কোনটি উপযুক্ত তা জেনেই সঞ্চয়পত্র কিনুন।


বাংলাদেশ সঞ্চয়পত্র

এটি দেশের সবচেয়ে পুরোনো সঞ্চয়পত্র। যা চালু হয় ১৯৭৭ সালে। এর মেয়াদকাল ৫ বছর। এই সঞ্চয়পত্রে মুনাফার হার মেয়াদ শেষে ১১ দশমিক ২৮ শতাংশ। দেশের যেকোনো নাগরিক এটি কিনতে পারেন।
১০, ৫০, ১০০ ও ৫০০ টাকা, ১০০০, ৫০০০, ১০০০০, ২৫০০০ ও ৫০০০০ টাকা এবং ১ লাখ, ৫ লাখ ও ১০ লাখ টাকা মূল্যমানের বাংলাদেশ সঞ্চয়পত্র পাওয়া যায়। ব্যক্তির ক্ষেত্রে একক নামে ৩০ লাখ ও যৌথ নামে ৬০ লাখ টাকা পর্যন্ত বাংলাদেশ সঞ্চয়পত্র কেনা যায়। প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে এর কোনো সীমা নির্ধারণ নয়।


পরিবার সঞ্চয়পত্র

২০০৯ সালে চালু হয় এ সঞ্চয়পত্র। মাসিক মুনাফার ভিত্তিতে এ সঞ্চয়পত্র করা যায়। ৫ বছর মেয়াদি হয় এই সঞ্চয়পত্র। মেয়াদ শেষে মুনাফা পাওয়া যায় ১১ দশমিক ৫২ শতাংশ। সঞ্চয়পত্রটি বিক্রি হয় ১০ হাজার, ২০ হাজার, ৫০ হাজার, ১ লাখ, ২ লাখ, ৫ লাখ ও ১০ লাখ টাকা মূল্যমানে। এক নামে সর্বোচ্চ ৪৫ লাখ টাকার পরিবার সঞ্চয়পত্র কেনা যায়। ১৮ বছর বা তার বেশি বয়সী নারী, শারীরিক প্রতিবন্ধী যেকোনো বয়সী নারী-পুরুষ এবং ৬৫ বা তার চেয়ে বেশি বয়সী নারী-পুরুষ এ সঞ্চয়পত্র কিনতে পারেন।

পেনশনার সঞ্চয়পত্র

২০০৪ সালে চালু হয় এই সঞ্চয়পত্র। তিন মাস পরপরও মুনাফা পাওয়া যায়। এর মেয়াদকাল ৫ বছর। মেয়াদ শেষে মুনাফার হার ১১ দশমিক ৭৬ শতাংশ। ৫০ হাজার, ১ লাখ, ৫ লাখ ও ১০ লাখ টাকা মূল্যমানের ৫ ধরনের সঞ্চয়পত্র রয়েছে। অবসরপ্রাপ্ত সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত, আধা স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী, অবসরপ্রাপ্ত সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি ও সশস্ত্র বাহিনীর সদস্য এবং মৃত চাকরিজীবীর পারিবারিক পেনশন সুবিধাভোগী স্বামী, স্ত্রী ও সন্তানরাই শুধু এ সঞ্চয়পত্র কিনতে পারেন।

ডাকঘর সঞ্চয়পত্র

এই সঞ্চয়পত্রের মেয়াদকাল ৩ বছর। এটি শুধু ডাকঘর থেকে লেনদেন হয়। তিন বছর মেয়াদি ডাকঘর সঞ্চয়পত্রের সুদের হার বর্তমানে ১১ দশমিক ২৮ শতাংশ। ডাকঘর থেকেই এ সঞ্চয়পত্র কেনা ও নগদায়ন করা যায়। এটি সবার জন্য় উন্মুক্ত।

মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র

১৯৯৮ সালে চালু হয় এই সঞ্চয়পত্র। এর মেয়াদকাল ৩ বছর। এটি তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র। মুনাফার হার ১১ দশমিক ৪ শতাংশ। ১ লাখ, ২ লাখ, ৫ লাখ ও ১০ লাখ টাকা মূল্যমানে এই সঞ্চয়পত্র কেনা যায়। এই সঞ্চয়পত্র সবার জন্য উন্মুক্ত।

Link copied!