• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৩ মে, ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,

‘খুফিয়া’ সিনেমার প্রস্তাব পেয়েছিলাম, করিনি : নাদিয়া


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: মে ২২, ২০২৩, ০৫:৩৬ পিএম
‘খুফিয়া’ সিনেমার প্রস্তাব পেয়েছিলাম, করিনি : নাদিয়া

ছোট পর্দার অভিনেত্রী সালহা খানম নাদিয়া। অভিনয় করে দর্শকদের কাছে সুনাম কুড়িয়ে চলচ্চিত্রে নিজের নাম লিখিয়েছেন তিনি। ওটিটি প্লাটফর্মেও কাজ করেছেন, তবে সেখানে তার পদযাত্রা কম। অনেকের তার সাথে কাজ করতে সচ্ছন্দ বোধ করেন না বলেই কি কাজে কম দেখা যাচ্ছে তাকে? এমন প্রশ্নের উত্তর মেলে তার দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে।

‘রেডরাম’ ছাড়া ওটিটিতে দেখা না যাওয়ার কারণ হিসেবে এই অভিনেত্রী বলেন, “আমার কাছে প্রস্তাব আসেনি। আমি অপেক্ষা করছি। এখন নতুন নতুন শিল্পী এসেছেন, তারা গ্রুপ হয়ে গেছেন। তারা হয়তো একসঙ্গে কাজ করতে পছন্দ করেন। আমি ‘সিন্ডিকেট‍‍’ শব্দটা ব্যবহার করতে চাই না। হয়তো আমার সঙ্গে তাদের কাজ করতে ভালো লাগে না। তাদের সঙ্গে আমার যোগাযোগ, লবিং, বন্ধুত্ব নেই। আমার অভিনয়ের ওপর নির্ভর করে কেউ কাজ করাতে চাইলে ও চিত্রনাট্য পছন্দ হলে অবশ্যই ওটিটিতে কাজ করবো।”

বেশ বাছাই করেই কাজ করেন এই অভিনেত্রী। তার কাছে অধিকাংশ সময় কমেডি সিনেমার প্রস্তাব আসে। এ বিষয়ে তিনি বলেন, “যে কেউ নাটক বানাচ্ছেন, যে কেউ অভিনয় করছেন। যারা অভিনয় জানেন না, তাদের নিয়েও কাজ করছেন। এ রকম কাজ আমি করব না, আগেও করিনি। কমেডি গল্প বেশি আসছে। কমেডির একটা সীমা থাকা দরকার। আমি কমেডি করতে চাই, সমস্যা নেই। তবে নাটকে বার্তা থাকতে হবে।”

এই অভিনেত্রী আরও যুক্ত করে বলেন, “বাণিজ্যিক সিনেমার প্রস্তাব প্রায়ই আসে। তবে আমি প্রস্তুত নই। অনেক টাকা-পয়সা উপার্জন করতে হবে— এমন কোনো লক্ষ্য আমার নেই। অভিনয়টা আমার প্যাশন, ভালো লাগে বলে করি। বিশাল ভরদ্বাজের ‘খুফিয়া’ সিনেমার প্রস্তাব পেয়েছিলাম, করিনি।”

বর্তমানে নাদিয়া ভারত ও বাংলাদেশের যৌথ সিনেমা ‘সুনেত্রা সুন্দরম’-এর কাজে ব্যস্ত আছেন। তিনি বলেন, “ঢাকার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান বিডি বক্স প্রোডাকশনের ব্যানারে সিনেমাটি নির্মাণ করছেন শিবরাম শর্মা। পরিচালক ঢাকার বেশ কয়েকটি মিউজিক ভিডিও পরিচালনা করেছেন। সিনেমার ডিওপি রাজন হোসেন। তারা কলকাতা ও বাংলাদেশের শিল্পীদের নিয়ে কাজ করতে চেয়েছেন। বাংলাদেশ থেকে আমি, ফারজানা চুমকি আপু ও রকি খান আছেন। সিনেমার প্রধান তিন চরিত্রে পার্নো মিত্র, চুমকি আপু ও আমি অভিনয় করছি। নারীদের অধিকার নিয়ে আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে সিনেমাটি নির্মাণ করা হচ্ছে। দৃশ্যধারণ প্রায় শেষ, গানের অংশ বাকি আছে। অনুমতি পেলে আগামী মাসে দৃশ্যধারণ শেষ করতে পারব। ছবিটি বাংলাদেশ, কলকাতা ও আসামে মুক্তি পাবে।”

Link copied!