• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

করোনায় চবি অধ্যাপকের মৃত্যু


চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি
প্রকাশিত: আগস্ট ৭, ২০২১, ০৪:০২ পিএম
করোনায় চবি অধ্যাপকের মৃত্যু

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সাবেক ডিন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক গাজী সালেহ উদ্দিন।

শুক্রবার (৬ আগস্ট) রাত ৮টার দিকে ঢাকার গুলশানের শিকদার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃস্বাস ত্যাগ করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে গাজী সাহেল উদ্দিনের ছেলে সালেহিন তানভীর গাজী বলেন, অক্সিজেন স্যাচুরেশন কমে যাওয়ায় শুক্রবার উনাকে অক্সিজেন সাপোর্ট দেওয়া হয়েছিল। আইসিইউতে থাকা অবস্থায় তিনি মারা যান। 

এদিকে, প্রফেসর ড. গাজী সালেহ উদ্দিনের মৃত্যুতে চবি উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার ও উপ-উপাচার্য প্রফেসর বেনু কুমার দে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের পক্ষ থেকে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

শোক বাণীতে উপাচার্য ও উপ-উপাচার্য বলেন, প্রফেসর ড. গাজী সালেহ উদ্দিন ছিলেন অত্যন্ত বিনয়ী, সদালাপী, নির্লোভ- নিরঅহংকারী, সদা হাস্যোজ্জ্বল সর্বোপরি একজন গুণী শিক্ষক। জাতির পিতার আদর্শের অকুতোভয় এ সৈনিক দেশের যে কোন প্রগতিশীল আন্দোলনে সম্মুখ সারিতে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন।

অধ্যাপক ড. গাজী সালেহ উদ্দিন একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। চট্টগ্রামের প্রগতিশীল বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে সাহসী ও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে তার। আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে যুদ্ধাপরাধীর বিচারের ক্ষেত্রে তার লেখা বইয়ের তথ্যকে দালিলিক সাক্ষ্য হিসেবে গ্রহণ করা হয়েছিল। এছাড়াও ১/১১ এর সময় বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্রেপ্তার হওয়ার পর এর প্রতিবাদে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করায় চবির তৎকালীন উপাচার্য অধ্যাপক আবু ইউসুফের সঙ্গে তাকেও পতেঙ্গা র‍্যাব কার্যালয়ে নিয়ে গিয়ে অপদস্ত করা হয়েছিল।

ড. গাজী সালেহ উদ্দিনের জন্ম ১৯৪৯ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর। পৈত্রিক নিবাস নোয়াখালী জেলার সোনাইমুড়ী উপজেলার বজরা ইউনিয়নের বদরপুর গ্রাম। শহীদ পরিবারের সন্তান ও মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর ড. গাজী সালেহ উদ্দিন বড় হয়েছেন চট্টগ্রাম শহরের পাহাড়তলীর পাঞ্জাবী লেন-এ (বর্তমানে শহীদ লেন)।

মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী শহীদ আলী করিম এবং মাতা হুরমোজা বেগমের দ্বিতীয় ছেলে তিনি। পিতা রেলওয়ের কর্মকতা হওয়ার সুবাদে তিনি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা সম্পন্ন করেছেন পাহাড়তলী রেলওয়ে স্কুলে।

পরবর্তীতে চট্টগ্রাম কলেজ এবং চবি থেকে স্নাতক ও মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদানের পর উপমহাদেশের প্রখ্যাত সমাজ বিজ্ঞানী প্রফেসর ড. অনুপম সেনের গবেষণা নির্দেশনায় ডক্টরেট ডিগ্রি লাভ করেন। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সাবেক ডিন ও প্রক্টর ছিলেন। 
 

Link copied!