• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতে তদারকি প্রয়োজন: আইএলও


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: জুলাই ১৫, ২০২১, ০৮:১৯ পিএম
নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতে তদারকি প্রয়োজন: আইএলও

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে হাসেম ফুডস লিমিটেডের কারখানায় আগুন লাগার পর উঠে এসেছে নানা প্রশ্ন। আগুনে ৫২ জন শ্রমিকের মৃত্য হয়।এই ঘটনার পর বাংলাদেশের শ্রমিকদের কর্মপরিবেশ নিরাপদ করতে দেশের সব কারখানায় জরুরি ভিত্তিতে তদারকি করা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও)। 

আইএলও শনিবার (১০ জুলাই) রূপগঞ্জে ঘটনায় শোক জানিয়ে দেওয়া এক বিবৃতিতে এই মন্তব্য করেন।

রূপগঞ্জের ঘটনায় নিহত ও আহত ব্যক্তিদের প্রতি গভীর শোক জানিয়ে আইএলও বলেন, "সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও কারখানা মালিকদের কারখানা বিল্ডিংগুলো কোড মেনে নির্মিত হয়েছে কি না এবং পরিচালনার ক্ষেত্রে নিয়ম-কানুন মানা হচ্ছে কি না তা খতিয়ে দেখা দরকার। আইনকানুন মেনে ভবন নির্মাণ ও কারখানা পরিচালনা করলে অগ্নিদুর্ঘটনার মতো জরুরি মুহূর্তে শ্রমিকেরা নিরাপদে বের হওয়ার সুযোগ পান।"

রানা প্লাজা ধসের পর বাংলাদেশ সরকার, মালিকপক্ষ, শ্রমিক সংগঠন ও উন্নয়ন সংস্থার সঙ্গে সারাদেশের পোশাক শিল্পের কর্মপরিবেশ উন্নয়নে কাজ করছে আইএলও।

বাংলাদেশে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের ঘটনার পর অন্য সকল কারখানার কর্মপরিবেশ উন্নয়নে নিশ্চিত পদক্ষেপ নেওয়া হলে সহযোগিতা করা হবে বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করেছে আইএলও।

সারাদেশের সকল শিল্পকারখানার নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতে যেসব ঘাটতি রয়েছে, তা পূরণে সবপক্ষের জোড় চেষ্টা থাকবে বলে মনে করে আইএলও। 

বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে হাসেম ফুড অ্যান্ড বেভারেজের ফ্যাক্টরিতে আগুন লাগে। এ ঘটনায় ৫২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এখনও উদ্ধার কাজ চলছে। ঘটনার তৃতীয় দিন শনিবার (১০ জুলাই) ভবনটির পাঁচ ও ছয়তলায় উদ্ধার অভিযান শুরু করে ফায়ার সার্ভিসে সদস্যরা।

এদিকে সকাল থেকে অগ্নিকাণ্ডে মৃতদের মরদেহ শনাক্ত করতে ডিএনএ পরীক্ষার জন্য স্বজনদের নমুনা সংগ্রহ করছে ঢাকা মেডিকেল কলেজের (ঢামেক) মর্গ। দুপুর ১২টা পর্যন্ত ২৭ জনের মরদেহ শনাক্ত করতে ৩৭ স্বজনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়।

Link copied!