• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২১ জুন, ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১, ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

মুখ-নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ দূর হবে সহজে


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: জুলাই ১৮, ২০২১, ০৪:০১ পিএম
মুখ-নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ দূর  হবে সহজে

অনেকেই মুখে ও নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ হওয়ার সমস্যায় ভুগেন। এই সমস্যাটি কখনও নিজে টের পাওয়া যায় না। কারো সঙ্গে কথা বললে দুর্গন্ধ অন্যরা টের পান। যা সত্যিই বিব্রতকর। স্বাস্থ্যবিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই লক্ষণ কোনও রোগ নয়, বরং বড় কোনও রোগের উপসর্গ হতে পারে।

মুখে ও নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ হওয়াকে বলা হয় ‘হ্যালিটোসিস’। বিশ্বের প্রায় ৩০ শতাংশ মানুষ এমন সমস্যায় ভুগছেন।

মুখে ও নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ হওয়ার কারণ হচ্ছে দাঁতের ক্যাভিটি, মাড়ির অসুখ, অপরিষ্কার মুখগহ্বর ও জিভে কোন ধরনের সমস্যা। তবে আপনি অপুষ্টি, গলা ও সাইনাসের সংক্রমণ, অনিয়ন্ত্রিত মধুমেহ রোগ এবং পেটের সমস্যা থাকলেও মুখের ভেতর ও নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ হতে পারে৷ এমন সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে কিছু বিষয় যত্নশীল হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন স্বাস্থ্যবিদরা।

প্রতিদিনের জীবনযাপনে কিছু অভ্যাস করুন এবং কিছু বিষয়ে মেনে চলুন যা মুখ ও নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ হওয়ার সমস্যা থেকে রেহাই দিবে।

  • প্রতিদিন নিয়মিত ব্রাশ করুন। আপনি যদি বাঁধানো দাঁতের পাটি ব্যবহার করেন তাহলে তা প্রতিদিন নিয়মিত পরিষ্কার করুন ৷ রাতে ঘুমানোর সময় অবশ্যই দাঁতের পাটি খুলে ঘুমাবেন। এটি পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। পরদিন সকালে পরিষ্কার করে পরুন৷
  • প্রচুর পানি খেতে হবে। ব্রাশ করার পর বেশকিছু ক্ষণ কুলকুচি করে নিন ৷ এতে শ্বাসপ্রশ্বাস ও মন দুটোই তরতাজা হবে।
  • প্রত্যেক খাবারের পর দাঁত ব্রাশ করলে ভালো। সেটা সম্ভব না হলে অন্তত সকালে ও রাতে দুইবার দাঁত ব্রাশ করুন।
  • খাবারের পর দাঁঁত ফ্লস দিয়ে পরিষ্কার করে নিন। এতে দাঁতের ফাঁকে খাবার জমে থাকবে না। দুর্গন্ধও হবে না। 
  • বছরে প্রতি দুই থেকে তিন মাস পর পর ব্রাশ পাল্টে নিন। একটি ব্রাশে বেশিদিন কার্যকারিতা থাকে না।
  • দাঁত ব্রাশের সময় জিভও পরিষ্কার করে নিন।
  • মুখে দুর্গন্ধ দূর করতে লবঙ্গ ও মৌরি খেতে পারেন ৷ এগুলোর অ্যান্টিসেপটিক গুণ হ্যালিটোসিস-এর ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধ করে।
  • ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার বেশি খাবেন। এছাড়াও পার্সলি, পুদিনা পাতার চিবিয়ে নিতে পারেন।
  • অ্যালকোহলমুক্ত মাউথওয়াশ ব্যবহার করুন। বাড়িতেই সহজে বানিয়ে নিতে পারেন। এক কাপ পানিতে এক চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে নিন ৷ মিশ্রণটি দিয়ে ভালো করে কুলিকুচি করুন ৷ মিশ্রণটি গিলে ফেলবেন না ৷
  • চুইংগাম চিবিয়ে নিতে পারেন। এটি মুখের লালা প্রবাহকে বাড়িয়ে তোলে। খাবার খাওয়ার পরে চুইংগাম চিবানো হলে মুখের বর্ধিত লালা প্রবাহটি দাঁতের জমে থাকা ব্যাকটেরিয়াগুলো দূর করে।
  • গ্রিন টি, স্পারমিন্ট, দারুচিনি, শাকসবজী ও ফল যেমন আপেল, কমলা, তরমুজ, বেরি, নাশপাতি, সেলারি, গাজর এবং শসাও মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে সহায়তা করতে পারে।
  • ধূমপান ও তামাক সেবন বন্ধ করুন। অ্যালকোহল পান সীমাবদ্ধ করুন। এটি শুধু দুর্গন্ধ নয়, মুখের সাধারণ স্বাস্থ্যের ওপর খারাপ প্রভাব ফেলে।
  • কোনওভাবেই মুখের দুর্গন্ধ দূর না হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

 

সূত্র: ডেন্টিস্ট চ্যানেল অনলাইন

Link copied!