• ঢাকা
  • শনিবার, ০২ মার্চ, ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০, ২০ শা’বান ১৪৪৫

৬২ লাখ টাকায় রাখির নগ্ন ভিডিও বিক্রির অভিযোগ


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: আগস্ট ২৩, ২০২৩, ০৩:০৬ পিএম
৬২ লাখ টাকায় রাখির নগ্ন ভিডিও বিক্রির অভিযোগ
ছবি : সংগৃহীত

বিকৃত যৌনাচার, শারীরিক নির্যাতন, পরকীয়া, অর্থ-গয়না চুরি এবং পণ নেওয়ার অভিযোগে স্বামী আদিল ডুরানির নামে মামলা করেছেন বলিউড অভিনেত্রী রাখি সাওয়ান্ত। মামলায় আদিলকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। কয়েক মাস কারাবাসের পর জেল থেকে ছাড়া পেয়েছেন আদিল।

জেল থেকে বের হয়েই রাখিকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন আদিল। এবার আদিলের বিরুদ্ধে রাখির অভিযোগ—মোটা অঙ্কের অর্থের বিনিময়ে রাখির নগ্ন ভিডিও বিক্রি করেছেন আদিল।

পিংকভিলাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রাখি সাওয়ান্ত বলেন, ‘আমি বাথরুমে ছিলাম, তখন আদিল ভিডিও ধারণ করে। এ রকম অনেক ভিডিও রয়েছে, যেখানে আমাকে সম্পূর্ণ নগ্ন অবস্থায় দেখা যায়। আমি ওই সময়ে চুপ ছিলাম। কারণ আমি তার স্ত্রী ছিলাম। এমনকি ওই বাড়িতে আমাকে ধর্ষণ করেছে আদিল। আমার নগ্ন ভিডিও দুবাইয়ে ৪৭ লাখ রুপিতে (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৬২ লাখ টাকার বেশি) বিক্রি করেছে আদিল।’

আত্মহত্যার হুমকি দিয়ে রাখি সাওয়ান্ত বলেন, ‘আমার এসব ভিডিও যদি ভাইরাল হয়, তবে আমি কী করব? আমি বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করব। গোটা পৃথিবী আমার নগ্ন ভিডিও দেখবে। আমাকে বলুন আমি এখন কোথায় যাব? এই পৃথিবীকে আমার মুখ কীভাবে দেখাব? আমি সাধারণ কোনো মেয়ে না; আমি ভারতের একজন তারকা, একটি ব্র্যান্ড!’

এর আগে এক গণমাধ্যমে রাখি সাওয়ান্ত বলেছিলেন—‘আমার নগ্ন ভিডিও শুট করেছে আদিল। আর সেসব ভিডিও বিক্রি করেছে। এ নিয়ে আমি সাইবার ক্রাইমে অভিযোগ দায়ের করেছি।’

গত বছর আদিল ডুরানির সঙ্গে পরিচয় হয় রাখির। সম্পর্কের তিন মাসের মাথায় বিয়ে করেন তারা। গত বছরের জুলাই মাসে দুবাইয়ে তাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। এজন্য ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন রাখি; নাম পরিবর্তন করে হয়েছেন রাখি সাওয়ান্ত ফাতিমা। রাখির দায়ের করা মামলায়ই জেলে ছিলেন আদিল। জেল থাকা অবস্থায় আদিলকে ডিভোর্স দেন রাখি।

Link copied!