• ঢাকা
  • রবিবার, ১৬ জুন, ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১, ৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

‘নতুন প্রজন্মের মাঝে সেলিম আল দীন চর্চা বাড়াতে হবে’


ফেনী প্রতিনিধি
প্রকাশিত: আগস্ট ১৯, ২০২১, ১১:০৩ এএম
‘নতুন প্রজন্মের মাঝে সেলিম আল দীন চর্চা বাড়াতে হবে’

ফেনীতে নাট্যাচার্য ড. সেলিম আল দীনের ৭২তম জন্মবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে। সেলিম আল দীন চর্চা কেন্দ্র ফেনী উদ্যোগে বুধবার (১৮ আগস্ট) বিকেলে বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেও ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার চরদরবেশ ইউনিয়নের সেনেরখিল গ্রামে সেলিম আল দীনের পৈতৃক বাড়িতে তাঁর প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানানো হয়। 

সংগঠনের সহসভাপতি আসাদুজ্জামান দারার সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত পরিসরে স্মৃতিচারণা করেন সেলিম আল দীনের ছোট ভাই বোরহান উদ্দিন, স্থানীয় চরদরবেশ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ভুট্টো। সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমুল হক শামীমের সঞ্চালনায় সেলিম আল দীনের জীবনচিত্র তুলে ধরে স্বাগত বক্তব্য দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রাজীব সারওয়ার। সংগঠনের দপ্তর সম্পাদক সুরঞ্জিত নাগ এ সময় নাট্যাচার্যের দেশমাতৃকাকে নিয়ে একটি বিশেষ উদ্ধৃতি পাঠ করেন। 

এ সময় সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আলমগীর মাসুদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন রাজু, সহসাংস্কৃতিক সম্পাদক তাহমিনা তোফা সীমা, সেলিম আল দীন চর্চা কেন্দ্র সোনাগাজী উপজেলা কমিটির আহ্বায়ক আবদুর রহমান সুজন, সেলিম আল দীনের সহপাঠী গেরিলা মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী নসু উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা বলেন, বাংলা নাটকের গৌড়জন বাংলা নাটকের বরপুত্র উপমহাদেশের শ্রেষ্ঠ নাট্যকার সেলিম আল দীন রবীন্দ্রোত্তরকালে বাংলা নাটকের প্রধান পুরুষ। তাঁর সৃজনশীল শিল্পকর্মকে নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে সবাইকে কাজ করতে হবে। সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, করোনা মহামারিকাল অতিক্রান্ত হলে আরও বৃহৎ পরিসরে জন্মদিন পালনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হবে।

শেষে সেলিম আল দীনের স্মৃতিবিজড়িত পুকুর ঘাটসংলগ্ন ছাতিমগাছতলায় একটি কামিনী ফুলের চারা রোপণের মধ্য দিয়ে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করা হয়। পরে বাড়ির আঙিনায় বেশ কিছু ফলজ ও বনজ গাছের চারা রোপণ করা হয়। এর আগে সেলিম আল দীনের স্মৃতিবিজড়িত কক্ষে দোয়া ও মিলাদ পরিচালনা করেন মাওলানা সাইফুল ইসলাম।

প্রয়াত সেলিম আল দীন ১৯৪৯ সালের ১৮ আগস্ট ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার চরদরবেশ ইউনিয়নের সেনেরখিল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি আমৃত্যু জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি ২০০৮ সালের ১৪ জানুয়ারি রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।

Link copied!