• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ মে, ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৫ জ্বিলকদ ১৪৪৫

এবার গ্রেপ্তার পাকিস্তানের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: মে ১১, ২০২৩, ১০:৫৮ এএম
এবার গ্রেপ্তার পাকিস্তানের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খানকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে পাকিস্তানজুড়ে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। এরপরই বুধবার (১০ মে) দুপুরে পিটিআই মহাসচিব আসাদ উমর ও সহসভাপতি ফাওয়াদ চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এবার প্রধান বিরোধী দলটির ভাইস চেয়ারম্যান সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে অফিশিয়াল অ্যাকাউন্ট থেকে একটি ভিডিও পোস্টের মাধ্যমে এ তথ্য জানিয়েছে পিটিআই।

বৃহস্পতিবার (১১ মে) পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম দ্য ডন এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে। পিটিআই দাবি করেছে, তাদের সিনিয়র নেতা শাহ মেহমুদ কোরেশিকে বৃহস্পতিবার ভোরে ইসলামাবাদ পুলিশ ‘গ্রেপ্তার’ করে একটি ‘অজ্ঞাত স্থানে’ নিয়ে গেছে।

তাদের শেয়ার করা ওই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সাধারণ পোশাকধারী ব্যক্তিরা কোরেশিকে ধরে নিয়ে যাচ্ছেন। যে স্থানে তাকে আটক করা হয়, সেখান থেকে যাওয়ার আগে তিনি দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে হাত নাড়ছেন।

মঙ্গলবার ইমরানকে গ্রেপ্তারের পর পিটিআই নেতা ও কর্মীদের ওপর শাহবাজ সরকারের চলমান দমন-পীড়নের মধ্যে এই গ্রেপ্তারের ঘটনাটি ঘটল।

এর আগে বুধবার দুপুরে তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) মহাসচিব আসাদ উমরকে ইসলামাবাদ হাইকোর্টের (আইএইচসি) চত্বর থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর কিছু পরেই দলটির সহসভাপতি ফাওয়াদ চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ফাওয়াদ চৌধুরী গ্রেপ্তার এড়াতে বুধবার সকাল ১১টা থেকে পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্টে উপস্থিত ছিলেন। তবে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে বেরিয়ে আসার পর চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করা হয়। মেইনটেইন্যান্স অব পাবলিক অর্ডিন্যান্সের (এমপিও) তৃতীয় ধারায় ফাওয়াদ চৌধুরীকে ইসলামাবাদ পুলিশ গ্রেপ্তার করে এবং পরে তাকে সেক্রেটারিয়েট থানায় স্থানান্তর করে।

পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ টুইটারে দেওয়া এক বার্তায় বলেছে, ‘১২ মে পর্যন্ত ইসলামাবাদ হাইকোর্ট (আইএইচসি) থেকে সুরক্ষামূলক জামিন থাকা সত্ত্বেও সিনিয়র সহসভাপতি ফাওয়াদ চৌধুরীকে সুপ্রিম কোর্টের বাইরে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পাকিস্তানে জঙ্গলের আইন চলছে।’

এদিকে গ্রেপ্তারের আগে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় পিটিআই নেতা ফাওয়াদ চৌধুরী বলেন, “অন্তর্দ্বন্দ্ব থাকায় আইনজীবী সম্প্রদায় দুর্বল হয়ে পড়েছে। এমনভাবে কোনো আবেদনকারীকে কখনো গ্রেপ্তার করা হয়নি। ইসলামাবাদ হাইকোর্ট এক দিন আগে তার প্রাক্‌-গ্রেপ্তার জামিন মঞ্জুর করেছিল। যদিও সেটি তিনি আগেই ইসলামাবাদ পুলিশকে দেখিয়েছেন। পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের গ্রেপ্তারের ফলে দেশে বিভাজন তৈরি হয়েছে। তিনি বলেন, সংলাপের পথ প্রশস্ত করতে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে জায়গা দিতে হবে।”

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) প্রধান ইমরান খানের গ্রেপ্তারের পর দেশজুড়ে পিটিআইয়ের কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত ৮ জন নিহত এবং আরও ২৯০ জন আহত হয়েছেন। এ ছাড়া বিক্ষোভ দমাতে পাকিস্তানের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী প্রায় দুই হাজার বিক্ষোভকারীকে গ্রেপ্তার করেছে।

Link copied!