• ঢাকা
  • রবিবার, ১৯ মে, ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,

যে কারণে চাকরিচ্যুত কনস্টেবল শওকত


চট্টগ্রাম প্রতিনিধি
প্রকাশিত: এপ্রিল ২৮, ২০২৩, ১২:১২ পিএম
যে কারণে চাকরিচ্যুত কনস্টেবল শওকত

রাস্তায় পড়ে থাকা নাম-পরিচয়হীন স্বজনহারা অসুস্থ মানুষকে হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসাসেবা দিয়ে আলোচনায় আসা চট্টগ্রাম নগর পুলিশের (সিএমপি) কনস্টেবল শওকত হোসেনকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। অনুমতি ছাড়া ৭১ দিন কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকায় তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়।

গত ১৬ এপ্রিল তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়। বৃহস্পতিবার (২৭ এপ্রিল) বিষয়টি জানা যায়।

নগর পুলিশের উপকমিশনার (বন্দর) শাকিলা সুলতানার স্বাক্ষর করা আদেশে বলা হয়, শওকত হোসেনের ৭১ দিন কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকার অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে। এ ছাড়া অভিযুক্ত শারীরিক ও মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হওয়ায়, পারিবারিক ও ব্যক্তিগত সমস্যা থাকায় এবং বেওয়ারিশ মানুষ নিয়ে মানবিক কার্যক্রমে ব্যস্ত থাকায় পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি করা তার পক্ষে সম্ভব নয়—এমন বক্তব্য লিখিতভাবে কর্তৃপক্ষকে জানানোর পর তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ২০২১ সালের ২৬ অক্টোবর অসুস্থ হয়ে পড়লে শওকত হোসেনকে দামপাড়া বিভাগীয় হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। ওই বছরের ৮ নভেম্বর পর্যন্ত তিনি হাসপাতাল ভর্তি ছিলেন। পরদিন ৯ নভেম্বর থেকে ২০২২ সালের ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত ৭১ দিন তিনি থানায় অনুপস্থিত ছিলেন।

পরে শওকত হোসেনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা হয়। চলতি বছরের ১১ ফেব্রুয়ারি ওই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার কাছে লিখিত জবাব দেন তিনি। সেখানে তিনি বলেন, বেওয়ারিশ মানুষদের নিয়ে মানবিক কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার কারণে পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি করা সম্ভব নয়।

শওকত হোসেন নগরের কর্ণফুলী থানায় কনস্টেবল হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন। পরিচয়হীন অসুস্থ মানুষকে হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসাসেবা দেওয়ার জন্য মানবিক পুলিশ হিসেবে পরিচিত ছিলেন তিনি।

এদিকে বৃহস্পতিবার বিকেলে  শওকত ফেসবুকে লেখেন, “কখনো ভালো কিছুর জন্য ত্যাগ স্বীকার করতে হয়। তাই স্বেচ্ছায় নিজেকে সরিয়ে নিলাম। ইনশা আল্লাহ মানবতার কল্যাণে শেষনিশ্বাস পর্যন্ত নিয়োজিত থাকব।”

Link copied!