• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০১ মার্চ, ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৯ শা’বান ১৪৪৫

হত্যার পর লাশ ফেলে রাখেন মামা, শিয়ালে নিয়ে যাচ্ছিল পা


সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশিত: আগস্ট ৪, ২০২৩, ০৫:৪৯ পিএম
হত্যার পর লাশ ফেলে রাখেন মামা, শিয়ালে নিয়ে যাচ্ছিল পা
হত্যার অভিযোগে গ্রেপ্তার নজরুল ইসলাম

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে ৫ বছর বয়সী শিশু ফাতেমাকে হত্যার অভিযোগে প্রতিবেশী দূর সম্পর্কের মামা নজরুল ইসলামকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (৪ আগস্ট) দুপুরে সিরাজগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার (শাহজাদপুর সার্কেল) মো. কামরুজ্জামান এ তথ্য জানিয়েছেন।

পুলিশ জানায়, নজরুল ইসলাম ঢাকায় রিকশা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। ৪-৫ বছর আগে তিনি গ্রামে ফিরে বাড়ি করে। নজরুল দুটি বিয়ে করলেও দুই স্ত্রীর সঙ্গেই তার বিচ্ছেদ হয়। প্রতিবেশীর নুরজাহানের (৩০) মেয়ে শিশু ফাতেমাকে আদর করতেন এবং বাচ্চাদের বিভিন্ন সামগ্রী কিনে দিতেন নজরুল। এই কারণে ফাতেমা তাকে মামা বলে ডাকতো। সম্প্রতি নজরুল দেনাগ্রস্থ হয়ে পড়লে ফাতেমার কানে থাকা স্বর্ণের দুল নেওয়ার পরিকল্পনা করেন। পরে গত ৩১ জুলাই সকাল ১০টার দিকে  আখ দেওয়ার কথা বলে ফাতেমাকে ঘাসের ক্ষেতে নিয়ে যান নজরুল। এরপর তার কানে থাকা দুল খুলে নেওয়ার চেষ্টা করলে ফাতেমা চিৎকার করে। এসময় তাকে গলা চেপে হত্যা করেন নজরুল।

পুলিশ আরও জানায়, ফাতেমাকে হত্যার পর স্বাভাবিকভাবেই জীবন যাপন করতে থাকেন নজরুল। অপরদিকে ফাতেমার পরিবার তাকে না পেয়ে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি ও মাইকিং করতে থাকে। পরে  গত বুধবার (২ আগস্ট) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে প্রতিবেশী ডলি বেগম জানান ক্ষেতের মধ্যে একটি শিয়াল মানুষের পা নিয়ে যাচ্ছে। দৌড়ে সবাই সেখানে গিয়ে ফাতেমার অর্ধগলিত ও পা বিচ্ছিন্ন মরদেহ দেখতে পায়।

সহকারী পুলিশ সুপার (শাহজাদপুর সার্কেল) মো. কামরুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় ফাতেমার মা নুরজাহান বৃহস্পতিবার (৩ আগস্ট) শাহজাদপুর থানায় একটি মামলা করেন। এরপর উপজেলার হাবিবুল্লাহ নগর ইউনিয়নের ইসলামপুর ডায়া মোড় এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ নজরুল ইসলাম গ্রেপ্তার করে। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নজরুল হত্যার বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

Link copied!