• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১, ১৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

পানিবন্দি ২০ পরিবার


চট্টগ্রাম প্রতিনিধি
প্রকাশিত: আগস্ট ১৯, ২০২১, ১২:৪১ পিএম
পানিবন্দি ২০ পরিবার

চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলায় বর্ষা এলেই দুর্গতির কমতি থাকে না। মেম্বার, চেয়ারম্যানের দ্বারস্থ হয়েও কোনো প্রতিকার পাচ্ছে না পানিবন্দি ২০ পরিবার। পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে বর্ষার পানি ও পাহাড়ি ঢলে পানিবন্দি হয়ে পড়ে চট্টগ্রামের মায়ানী এলাকার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দারা।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো জানায়, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের দ্বারস্থ হলেও পানি নিষ্কাশনের কার্যকর কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। ফলে অনেকটা অসহায় হয়ে পড়েছে পরিবারগুলো। 

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, টানা বর্ষায় ভেঙে পড়েছে কয়েকটি পরিবারের ঘর। রাতে বৃষ্টি হলেই খোলা আকাশের নিচে রাত যাপন করছে তারা। বৃষ্টি হলে চুলায় আগুন জ্বলে না তাদের।

ভুক্তভোগী শানু মিয়া বলেন, “বর্ষা এলে আমাদের দুর্ভোগের শেষ থাকে না। গত ৫ বছরেরও বেশি সময় ধরে বর্ষা এলে আমরা পানিবন্দি হয়ে পড়ি।”

অন্য ভুক্তভোগী জানান, তার বাড়ির পানি চলাচলের একটা পথ ছিল। কিন্তু জোরপূর্বক একটি পরিবার পানি চলাচলের পথ বন্ধ করে দেওয়ায় তারা পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। তিনি আরও জানান, ক্ষমতাসীন দলের গোলাম মাওলা নামের এক নেতা অপরিকল্পিত মাছ চাষে এই দুর্ভোগ আরও চরমে পৌঁছেছে। ওই পুকুরের পানি এই বাড়ির দিকে ছেড়ে দেওয়ায় পানির তীব্রতা আরও বেড়েছে। গেল বছর পুকুরের পানিতে তলিয়ে যায় পুরো বাড়ি। এলাকার মেম্বারকে জানালেও কোনো প্রতিকার মেলেনি। 

স্থানীয় ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মহিউদ্দিন বলেন, “আমি একাধিকবার ওই পরিবারগুলোর সঙ্গে কথা বলেছি, কিন্তু তারা পানি চলাচলের জায়গা জোরপূর্বক বন্ধ করে রেখেছে।” 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মিনহাজুর রহমান বলেন, “এ বিষয়ে আমি অবগত ছিলাম না। যেহেতু জেনেছি আমরা সরেজমিন পরিদর্শন করে ব্যবস্থা গ্রহণ করব।”

Link copied!