• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই, ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১, ১১ মুহররম ১৪৪৫

পাটুরিয়ায় ঘরমুখো মানুষের চাপ


রাজবাড়ী প্রতিনিধি
প্রকাশিত: মে ১, ২০২২, ১২:১৬ পিএম
পাটুরিয়ায় ঘরমুখো মানুষের চাপ

ঈদের ছুটিতে ঘরে ফেরা মানুষের চাপ বেড়েছে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে। রাজধানী ঢাকার সঙ্গে দেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের ২১টি জেলার যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম এই দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে ঈদ উৎসবে অনেক বেশি যানবাহন পারাপার হয়। কয়েকদিনে ঈদে ঘরমুখো মানুষের ভিড় থাকলেও পর্যাপ্ত ফেরি চলাচল করায় কোনো ভোগান্তিতে পড়তে হয়নি সাধারণ মানুষকে।

শনিবার (৩০ এপ্রিল) মধ্য রাত থেকে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে দূরপাল্লার বাস, ছোট গাড়ি ও যাত্রীদের চাপ বেড়েছে। পর্যাপ্ত ফেরি থাকার পরও অতিরিক্ত যানবাহনের চাপে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে বাড়তি সময় লাগছে নৌরুট পার হতে।

রোববার (১ মে) সকাল ৯টা থেকে সোয়া ১০টা পর্যন্ত পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা যায়,পাটুরিয়া ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে দূরপাল্লার বাসের সিরিয়াল আরসিএল মোড় ছাড়িয়েছে। সকাল ১০টা পর্যন্ত দুইশ দূরপাল্লার পরিবহন বাস পাটুরিয়া দৌলতদিয়া নৌরুট পারের অপেক্ষায় রয়েছে। আর পাটুরিয়ার ৫ নম্বর ঘাট এলাকা থেকে নালী বাজার ও হাসপাতাল মোড় এলাকায় চারশো ছোট গাড়ি নৌরুট পারের অপেক্ষায় রয়েছে। দূরপাল্লার পরিবহন বাসগুলোকে ৫ থেকে সাড়ে ৫ ঘণ্টা ও ছোট গাড়িগুলোকে দুই ঘণ্টা থেকে আড়াই ঘণ্টা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হচ্ছে।

অন্যদিকে লোকাল গাড়িতে করে যেসব যাত্রীরা পাটুরিয়া ঘাট এসে নামছেন, তারা আধা কিলোমিটার পায়ে হেঁটে এসে সহজেই ফেরিতে উঠতে পারছেন। লঞ্চঘাট এলাকায় ভিড় থাকলেও পর্যাপ্ত লঞ্চ চলাচল করায় ভোগান্তি নেই। নৌরুট পার হতে আসা দূরপাল্লার পরিবহন বাসের যাত্রীরাই পড়েছেন বিপাকে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা কার্যালয়ের ডিজিএম শাহ মো. খালেদ নেওয়াজ বলেন, “ভোর থেকে ঘাট এলাকায় যানবাহনের বাড়তি চাপ বাড়ে। পাটুরিয়া দৌলতদিয়া নৌরুটে ২১টি ফেরি চলাচল করায় এসব যানবাহন পারাপার করা সহজ হয়েছে। এছাড়া ৫ নম্বর ঘাট দিয়ে শুধুমাত্র ছোট গাড়ি পারাপার করা হচ্ছে। পাঁচটি ঘাটের ১০টি পকেট চালু থাকায় লোড আনলোড স্বাভাবিক রয়েছে। এছাড়া যানবাহনের সাথে সাথে ফেরিগুলোতে যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে।”

Link copied!