• ঢাকা
  • রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৪ শা’বান ১৪৪৫

এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপে অধিনায়ক সাকিব


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: আগস্ট ১১, ২০২৩, ০২:০৯ পিএম
এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপে অধিনায়ক সাকিব
ফাইল ছবি

সকল জল্পনা-কল্পনার পর অবশেষে বাংলাদেশের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক হয়েছেন সাকিব আল হাসান। আসন্ন এশিয়া কাপ এবং বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দেবেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন শুক্রবার দুপুরে নিজ বাসভবনে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জানান এই সিদ্ধান্ত। এই মাসেই এশিয়া কাপ দিয়ে শুরু হবে তার নেতৃত্বের নতুন অধ্যায়।

বোর্ড সভাপতির সঙ্গে বৈঠকের পর গত ৩ অগাস্ট ওয়ানডে দলের নেতৃত্ব ছেড়ে দেন তামিম ইকবাল। এরপর সম্ভাব্য অধিনায়ক হিসেবে সাকিবের নামই উচ্চারিত হয়েছে সবচেয়ে বেশি। তবে তামিমের অনুপস্থিতিতে এর মধ্যেই ৫টি ওয়ানডেতে নেতৃত্ব দেওয়া লিটন দাসকে নিয়েও ছিল আলোচনা। সম্ভাবনা খানিকটা ছিল মেহেদী হাসান মিরাজেরও। তবে শেষ পর্যন্ত বিশ্ব আসরের মতো বড় মঞ্চে সাকিবের অভিজ্ঞতায়ই ভরসা রাখল বিসিবি।

অধিনায়ক বিষয়ে নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘সামনে এখন এশিয়া কাপ, এরপরই বিশ্বকাপ। এত কম সময়ের মধ্যে আমার কাছে মনে হয়েছে, সবচেয়ে সহজ ও অবধারিত পছন্দ সাকিব আল হাসান। আরেকটা অটো চয়েজ আছে। সেটা হলো, ও না খেললে সহ-অধিনায়ক যে আছে, সে হবে। লিটন দাস।”

এ সময় বোড সভাপতি আরও বলেন, "আরও দু-একটি নাম এসেছে, যেমন মেহেদী হাসান মিরাজ। দীর্ঘ মেয়াদে চিন্তা করলে কে হবে, সেই আলোচনা থেকে। কারণ এখন তো ধরেন মুশফিক করছে না, তামিমও ছেড়ে দিল, সাকিবও যদি কখনও ছেড়ে দেয় তখন কী হবে। ওরকম দীর্ঘ মেয়াদে যখন চিন্তা করব, তখন আরও নাম আসবে। এরকম নাম আসতেই পারে, সমস্যা নেই।"

তবে তিন সংস্করণেই সাকিব নেতৃত্ব দেবেন কি না, এই সিদ্ধান্ত তার সঙ্গে আরও আলোচনা করে পরে নেওয়া হবে বলে জানান বিসিবি সভাপতি। দেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্বে আগে থেকেই আছেন ৩৬ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার।

বোর্ড সভাপতি বলেন, ‍‍"একে তো ও দেশের বাইরে, তার ওপর একটা দলের হয়ে খেলছে। ওখানে ওরও কিছু কমিটমেন্ট আছে, ব্যস্ততা আছে। সেজন্য ওকে বেশি ডিস্টার্ব করতে চাইনি। আজকেও আবার ওর খেলা। তবে মোটামুটিভাবে যেটা আমরা ঠিক করেছি, বিশ্বকাপ পর্যন্ত যে খেলা আছে, এই সময়টায় অবশ্যই সাকিব আল হাসান অধিনায়ক। ওর সঙ্গে কথা বলে ঠিক করব যে, এটা কী দীর্ঘ মেয়াদি নাকি তিনটাই থাকবে নাকি দুটি থাকবে নাকি একটি, এগুলো ও দেশে এলে কথা বলে ঠিক করব।"

সাকিবকে নিয়ে আগে বোর্ড সভাপতির একটি সংশয় ছিল বলে জানালেন নিজেই। এখন তা দূর হয়ে গেছে বলেই নিশ্চিত করলেন তিনি।

বোর্ড প্রধান জানান, "ওর পটেনশিয়াল নিয়ে তো কোনো সন্দেহ নেই। একটা জিনিস খুব ভালো লাগছে আমার, গত এক বছর ধরে দেখছি, সেটা হচ্ছে সাকিবকে নিয়ে আমার যে সন্দেহ ছিল, এটা আমার ব্যক্তিগত কথা মনে হতো, ও কতটা সিরিয়াস, কোন খেলাটা খেলবে কিংবা খেলবে না এখন দেখছি ওর চেয়ে সিরিয়াস কেউ নেই, ক্রিকেট নিয়ে।"

পাপন সাথে আরও যোগ করেন," আমাদের যে পরিমাণ খেলা, সেগুলো তো খেলছেই, কন্টিসিউয়াসলি খেলে যাচ্ছে। কানাডায় গেল, এখন আবার শ্রীলঙ্কায় গেল। এই যে এখন বিশ্বকাপে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব, আমার কাছে মনে হয়, সে এখন টোটালি ফোকাসড অন ক্রিকেট। এটা আমাদের জন্য খুব বড় বিষয়। ওর সামর্থ্য নিয়ে কখনও কোনও সন্দেহ থাকার প্রশ্নই ওঠে না।"

সর্বশেষ ২০১৭ সালে এ সংস্করণে অধিনায়কত্ব করেছিলেন। ২০০৯ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত পূর্ণ মেয়াদে দায়িত্ব পালন করেছিলেন, এরপর ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব ছিল তাঁর। এখনও পর্যন্ত বাংলাদেশকে ৫০ ওয়ানডেতে নেতৃত্ব দিয়েছেন সাকিব। তাতে জয় ২৩টি, পরাজয় ২৬টি। ফলাফল হয়নি একটিতে।

Link copied!