• ঢাকা
  • রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৪ শা’বান ১৪৪৫

উল্টো দিকে হাঁটার উপকারিতা


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: আগস্ট ২০, ২০২৩, ১২:০৮ পিএম
উল্টো দিকে হাঁটার উপকারিতা

হাঁটাহাটি শরীরের জন্য সবচেয়ে উত্তম ব্যয়াম। শরীরের অতিরিক্ত ওজন নিয়ন্ত্রণ করা থেকে শুরু করে ফিটনেস বজায় রাখা জন্য হাঁটার ওপরেই ভরসা করেন বেশিরভাগ মানুষ। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গিয়েছে, রক্তচাপ, কোলেস্টেরল, ওবেসিটি— সমস্ত কিছুর দাওয়াই হলো হাঁটা। কিন্তু বেশ কিছু দিন হাঁটাহাটি করার পরেও আশানুরূপ ফল মেলে না অনেকের। ফিটনেস প্রশিক্ষকেরা প্রায়শই বলে থাকেন, কতটা হাঁটছেন, তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ হলো কীভাবে হাঁটছেন। আমরা সাধারণত সামনের দিকেই হাঁটি। উল্টো হাঁটার ফলও বেশ চমৎকার। কিন্তু শুনতে অস্বাভাবিক লাগলেও শরীরের সার্বিক উন্নতির জন্য পিছনে হাঁটার অভ্যাস করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। চলুন জেনে নেওয়া যাক বিস্তারিত-

মন ভালো রাখে
শরীরের সঙ্গে মনের যোগযোগ নিবিড়ভাবে জড়িত। মাইলের পর মাইল হেঁটে যাওয়ার মধ্যে একঘেয়েমি আসা স্বাভাবিক। শরীরচর্চার সঙ্গে মন যদি ভালো না থাকে, তাহলে ওজনে প্রভাব পড়বে না। উল্টো দিকে হাঁটলে সেই একঘেয়েমি কাটতে পারে।

পায়ের পেশি মজবুত করে
পায়ের পেশি মজবুত করতে ব্যায়াম যত না কাজ করে, তার চেয়ে দ্রুত কাজ করে উল্টো দিকে হাঁটলে। শুধু পায়ের নয়, দেহের নিম্নাংশের সব পেশির নমনীয়তা বাড়িয়ে তোলে।

ক্যালোরি ঝরে
প্রশিক্ষকেরা বলছেন, সামনে হাঁটার অভ্যাস যে পরিমাণ ক্যালোরি পোড়ায়, তার চেয়ে অনেক বেশি পরিমাণ ক্যালোরি বার্ন করা সম্ভব উল্টো দিকের হাঁটা। কারণ এতে শরীরের ওপর অনেক বেশি চাপ সৃ্ষ্টি হয় তাই ক্যালোরিও বার্ন হয় বেশি।

বিপাকহার উন্নত করে
ওজন ঝরানো থেকে সার্বিক ভাবে শরীরের উন্নতির জন্য গুরুত্বপূর্ণ হলো বিপাকহার। বিপাকহার উন্নত করতে অনেকেই নানা রকম পানীয় খেয়ে থাকেন। প্রশিক্ষকেরা বলছেন, পানীয়ের সঙ্গে উল্টো দিকে হাঁটার অভ্যাস করলে তা আরও বেশি ভালো ফল দেবে।

দেহের ভারসাম্য বজায় রাখে
উল্টো দিকে হাঁটলে দেহের ভারসাম্য বজায় থাকে। অনেকেই ব্যালান্সের অভাবে হাঁটতে গিয়ে পড়ে যান। তারা এই ভাবে হাঁটা অভ্যাস করলে উপকার পেতে পারেন।

তথ্যসূত্র: আজতক বাংলা

Link copied!