• ঢাকা
  • শনিবার, ১৩ জুলাই, ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১, ৬ মুহররম ১৪৪৫

ভাইয়ের প্রাণের বিনিময়ে স্বামী হত্যার প্রতিশোধ দাবি


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: মে ৭, ২০২২, ০৪:১৮ পিএম
ভাইয়ের প্রাণের বিনিময়ে স্বামী হত্যার প্রতিশোধ দাবি

প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে এক দলিত হিন্দু তরুণকে বিয়ে করেন মুসলিম পরিবারের এক মেয়ে। এর জেরে পরিবারের সম্মানহানির অভিযোগ এনে ওই তরুণকে পিটিয়ে হত্যা করেছে মেয়েটির ভাই। আর সেই ভাইয়ের প্রাণের বিনিময়ে স্বামী হত্যার প্রতিশোধ নিতে চান তরুণী। স্বামীকে হারিয়ে নিজ ভাইকে হত্যার হুমকি দিয়েছেন তিনি।

ভারতের হায়দরাবাদের সরুনগরে গত বুধবার বি নাগগরাজু নামে এক দলিত হিন্দুকে পিটিয়ে হত্যা করেছে তার স্ত্রীর ভাই। ঠিক একইভাবে নিজ ভাইকেও হত্যার হুমকি দিলেন স্বামীহারা সৈয়দ অশরিন সুলতানা ওরফে পল্লবী।

পল্লবী বলেন, “মাথা ফেটে মগজ বেরিয়ে আসা পর্যন্ত রাজুকে পিটিয়েছে আমার ভাই। ভাইয়ের কাছে হাতজোড় করে মিনতি করেছিলাম স্বামীকে না মারতে। আমি বলেছিলাম, তোমরা চাইলে আমি ওকে ছেড়ে দেব। কিন্তু ওকে প্রাণে মেরো না। কিন্তু আমার ভাই শোনেনি।”

তিনি আরও বলেন, “লোহার রড দিয়ে রাজুর মাথায় আঘাত করেছে তারা। মাথায় আঘাতের পর রাজু ছটফট করছিল। তার মৃত্যু নিশ্চিত করতে আঘাতের পর আঘাত করেছে ওর মাথায়। ৩০-৩৫ মিনিট ধরে ওকে মেরেছে।”

ভাইয়ের প্রাণের বিনিময়ে স্বামী হত্যার প্রতিশোধ চেয়ে পল্লবী বলেন, “ও আমার ভাই। আমি ওর বোন। আমার শরীরেও একই রক্ত বইছে। আমার রাজুকে যেভাবে মারা হয়েছে, ঠিক একইভাবে ওকে মারতে চাই।”

তেলেঙ্গানা পুলিশ বলছে, কলেজে পড়ার সময় বিল্লামপুরাম নাগরাজু ও সৈয়দ অশরিন সুলতানার মধ্যে পরিচয় হয়। পরে তারা প্রেমের সম্পর্কে জড়ান। চলতি বছরের জানুয়ারিতে তারা বিয়ে করেন। বিয়ের আগে সুলতানা ধর্ম পরিবর্তন করেন। মুসলিম ধর্ম ছেড়ে হিন্দুধর্ম গ্রহণ করে নিজের নাম রাখেন পল্লবী। সম্প্রতি তারা ঘুরতে যাওয়ার সময় পল্লবীর দুই ভাই হামলা চালান।

বিয়ের পর থেকে তাদের ওপর হামলার আশঙ্কা করছিলের পল্লবী। কিন্তু রাজু বলতো দুই এক বছরের মধ্যে সব ঠিক হয়ে যাবে। এবার ঈদে কেনাকাটা করে দেওয়ার জন্য ২৫ হাজার টাকায় নিজের সোনার হারও বিক্রি করে দিয়েছিলেন রাজু।

পুলিশ কমিশনার শ্রীধর রেড্ডি রিপাবলিক টিভিকে বলেন, নাগরাজু স্ত্রীকে নিয়ে বাইকে করে ঘুরতে যাচ্ছিলেন। তখন তার ওপর হামলা করা হয়। এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন মেয়ের দুই ভাই। বোনের বিয়ে সম্পর্কে শুরুর দিকে জানতেন না তার ভাই। জানার পর বোনের স্বামীকে হত্যার পরিকল্পনা করা হয়।

শ্রীধর রেড্ডি আরও বলেন, হামলাকারীরা পালিয়ে গেছেন। পরে তাদের গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাদের আদালতে পাঠানো হবে।

Link copied!