• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১, ৮ মুহররম ১৪৪৫

কেন সেপ্টেম্বরে বিশ্বব্যাপী দরদ?


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: জুলাই ১০, ২০২৪, ০১:৪৮ পিএম
কেন সেপ্টেম্বরে বিশ্বব্যাপী দরদ?
শাকিব খান । ছবি: সংগৃহীত

শাকিব খান অভিনীত ‘তুফান’-এর সফলতার রেশ কাটতে না কাটতেই ঘোষণা এলো জনপ্রিয় এই তারকার ‘দরদ’ সিনেমা মুক্তি পাবে সেপ্টেম্বরে। ‘তুফান’ ঝড় যখন বইছে তখন একই নায়কের আরেকটি সিনেমা কেন কাছাকাছি সময়ে মুক্তি দিতে যাচ্ছে এই নিয়ে ‘দরদ’র পরিচালক অনন্য মামুন নানা প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছেন। অনেকে বিষয়টি ষড়যন্ত্র হিসেবেও দেখছেন বলে মন্তব্য করেছেন। বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছেন নির্মাতা মামুন। তিনি এই নিয়ে বুধবার (১০ জুলাই) ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। সেখানে সেপ্টেম্বরে বিশ্বব্যাপী শাকিব খানের ‘দরদ’ সিনেমা কেন মুক্তি পাচ্ছে তার ব্যাখ্যা দিয়েছেন। আলোচিত এই নির্মাতা অনন্য মামুন লিখেছেন-

সত্যি বলতে কোন রেকর্ড ভাঙ্গতে বা গড়তে আমরা দরদ তৈরি করিনি। শুরু থেকেই আমরা বলে আসছি বিশ্ববাজারে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের বাজার তৈরি করাই আমাদের আসল লক্ষ্য। একটি বাম্পার হিট চলচ্চিত্র কলকাতায় ভালো ব্যবসা করেনি, সেটা নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে। এখানে আমি আমার কিছু তথ্য শেয়ার করি। সারা ভারতবর্ষে বাংলায় কথা বলে প্রায় ১০ কোটি মানুষ।  তার মধ্যে আসাম, শিলিগুড়ি,  বাংলাদেশের বডার সাইডে  প্রায় ৩ কোটি ভারতীয় মানুষ থাকে যারা বাংলায় কথা বলে। আর আমাদের মেগাস্টার শাকিব খানের যে সিনেমাটি রিলিজ হয়েছে সেটা ঐ এলাকা গুলোতে হয়নি। আর মাত্র ৩৫টি হল এ ৫২ টি শো নিয়ে সিনেমাটি মূলত শুধু মাত্র কলকাতাতে রিলিজ হয়েছে। যেখানে আমাদের সিনেপ্লেক্সে ৫৮ টি চলেছে।

 

বিশ্বব্যাপী বাংলা ভাষায় ঝড় তোলা সিনেমাটি কোলকাতায় না চলছে আমাদের মেগাস্টারের কিছু যায় আসে না। তারপর এখন কলকাতায় কালকি ও কিল বলে দুটি সিনেমা সুপার ব্যবসা করছে। ভবিষ্যৎ কথা আগেই বলেই রাখি বাংলাদেশের ব্যবসা ছাড়া বাংলা চলচ্চিত্রের বাজার কোন দিন বড় করা সম্ভব না। সেটা কলকাতার মানুষও জানে। কারণ বিশ্বব্যাপী বাংলায় কথা বলা মানুষের সংখ্যা ৩০-৩২ কোটি। তার মধ্যে দেশ বিদেশ মিলে বাংলাদেশিই প্রায় ২২ কোটি। আর বাংলা চলচ্চিত্রের বাজার বিশ্বে তৈরি করতে হলে বাংলাদেশ ছাড়া সম্ভব নয়। তাই বলছি বিভাজন তৈরি না করে উভয় দেশের একসাথে কাজ করলে বাংলা চলচ্চিত্ররে বাজার তৈরি হবে।  দরদ এক সাথে অনেকগুলো দেশে মুক্তি পাবে। কেউ কাউকে ছোট না করি। যারা বাজে কথা বলছে আপনাদের কি মনে হয় তারা বাংলা চলচ্চিত্রকে ভালোবাসে?  না, ওরা ভালোবাসে না, ওরা আগুনে তেল দিয়ে বাংলা চলচ্চিত্রকে ধ্বংসকরতে চায়।

মামুন আরও জানিয়েছেন, আগামী দুই মাস অর্থাৎ জুলাই ও আগস্ট মাস জুড়েই থাকবে ‘দরদ’-র প্রোমোশন। তবে এ প্রমোশনে নতুন কিছু চমকের ইঙ্গিতও দিয়েছেন নির্মাতা।
চমকের বিষয়ে বিস্তারিত এখনই কিছু না বললেও শাকিবিয়ানদের নিয়ে প্রথমবারের মতো কোনো বড় আয়োজন থাকবে সে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামুন।

‘দরদ’  সিনেমায় শাকিব খানের নায়িকা বলিউডের সোনাল চৌহান। আরও অভিনয় করেছেন বাংলাদেশ ও ভারতের অভিনয়শিল্পীরা। আছেন পায়েল সরকার, বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, রাজেশ শর্মা, এলিনা শাম্মী, ইমতু রাতিশ, রাহুল দেব, অলোক জৈন, সাফা মারিয়া, জেসিয়া ইসলাম প্রমুখ। 

 

Link copied!