• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১, ১২ মুহররম ১৪৪৫

সিনেমার বক্স অফিসে ঝড় তুলেছে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’


তপন বকসি
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১০, ২০২২, ১০:৫৬ পিএম
সিনেমার বক্স অফিসে ঝড় তুলেছে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’

অবশেষে হিন্দি সিনেমার ব্যবসায়িক বিশ্লেষকদের আশাকেও ছাপিয়ে গেল ‍‍`ব্রহ্মাস্ত্র‍‍`। ছুটির রিলিজ না হয়ে, সাধারণ কাজের দিনের রিলিজ হিসেবে ‍‍`ব্রহ্মাস্ত্র‍‍` হিন্দি সিনেমার ইতিহাসে সর্বকালীন রেকর্ড তৈরি করল। অন্যদিকে, ২০২২ -এর  আগষ্ট মাসের প্রথমার্ধেই  হিন্দি সিনেমার  বক্স অফিসের বছরের সেরা ছবি হয়ে রইল ‍‍`ব্রহ্মাস্ত্র‍‍`। সূত্রের খবর, শুধুমাত্র ভারতে  প্রথম দিনে ‍‍`ব্রহ্মাস্ত্র‍‍`-র উপার্জন ৩৯ কোটি রুপি। আর ওপেনিং ডে-তে ‍‍`ব্রহ্মাস্ত্র‍‍`-র বিশ্বব্যাপী  
উপার্জনের পরিমাণ ৭৫ কোটি রুপিরও বেশি। হিন্দি সিনেমার ব্যবসায়িক বিশ্লেষকদের মতে, রবিবারের শেষে অর্থাৎ সপ্তাহান্তে এই ছবির ভারতের সাপ্তাহিক আয় হবে ১২০ কোটি রুপি। আর বিশ্বব্যাপী এই ছবির  সাপ্তাহিক আয় গিয়ে দাঁড়াবে ২৩৫ কোটি রুপিতে।

পাঁচ বছর আগে শুরু হওয়া এই ছবির রিলিজ শুধুমাত্র করোনা বিপর্যয়ের জন্যই সময় নিয়েছে আড়াই বছর। হিন্দি সিনেমার মক্কা বলিউডে করোনার পরবর্তী সময়ে ‍‍`সূর্যবংশী‍‍` এবং ‍‍`ভুল ভুলাইয়া ২‍‍` ছাড়া বেশির ভাগ বড় এবং মাঝারি মাপের হিন্দি সিনেমার ব্যবসায়িক চিত্র ভালো ছিল না। তার বদলে দক্ষিণ ভারতের হিন্দি রিমেক ছবিগুলি অভাবনীয় ভাল ফল করেছিল। হিন্দি সিনেমার লাগাতার এই ব্যবসায়িক মন্দার পরিবেশে তাই প্রযোজক করণ জোহরের বিশাল বাজেটের সাই-ফাই ছবির ভবিষ্যৎ নিয়েও চাপা সন্দেহ তৈরি হয়েছিল। আর তাতেই আরও ধোঁয়া জুগিয়েছিল   সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছু মানুষের ব্যক্তিগত নেগেটিভ মন্তব্যগুলি। কিন্তু শেষমেশ দেখা গেল, রিলিজের মাত্র ১০ দিন আগেই প্রযোজক করণ জোহর, পরিচালক অয়ন মুখোপাধ্যায়রা যে নতুন মার্কেটিং স্ট্র্যাটেজি অনুসরণ করলেন, তার সুফল মিলল হাতেনাতে। রিলিজের প্রথম দিনেই যদি কোনও সিনেমার  তিরিশ কোটি রুপি উপার্জন হয়, তখনই সেই সিনেমা সাধারণ মানুষের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে ওঠে। ঠিক যেমন এর আগে হয়েছিল ‍‍`কেজিএফ চ্যাপটার টু‍‍`(হিন্দি), ‍‍`থাগস অফ হিন্দুস্তান‍‍`, ‍‍`হ্যাপি নিউ ইয়ার‍‍`, ‍‍`ভারত‍‍`, ‍‍`বাহুবলী দ্য কনক্লুশন‍‍`, ‍‍`প্রেম রতন ধন পায়ো‍‍`, ‍‍`সুলতান‍‍`, ‍‍`ধুম থ্রি‍‍`, ‍‍`টাইগার জিন্দা হ্যায়‍‍`, ‍‍`চেন্নাই এক্সপ্রেস‍‍`, ‍‍`এক থা টাইগার‍‍`, ‍‍`সিংঘম রিটার্ন্স‍‍` বা ‍‍`গোলমাল এগেইন‍‍`-এর সময়। এই ছবিগুলি  প্রত্যেকটি রিলিজ হয়েছে আগের ছবির ফ্র্যাঞ্চাইজি হিসেবে অথবা কোনও উৎসবের ছবি হিসেবে।  কিন্তু সঞ্জয় দত্তের জীবনী নিয়ে তৈরি হওয়া রাজকুমার হিরানির ছবি ‍‍`সঞ্জু‍‍` আর ‍‍`ব্রহ্মাস্ত্র‍‍` ছুটির দিনের নয়, কাজের দিনে রিলিজ হওয়া দু‍‍`টি অত্যন্ত সফল হিন্দি সিনেমা। এবং কাকতালীয়ভাবে এই দুটি ছবিরই নায়ক রনবীর কাপুর।

মজার বিষয়, ‍‍`ব্রহ্মাস্ত্র‍‍`  রিলিজের প্রথম দিনেই অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ছবির বিরুদ্ধে সব রকম নেগেটিভ মন্তব্য উগড়ে দিয়েছেন। আগের দিনই এর বিশেষ প্রেস শো শেষ হতে না হতেই, দু একজন বিশিষ্ট সিনেমা বিশ্লেষক, এবং ব্যক্তিগতভাবে বেশকিছু মানুষ তাঁদের সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ছবিটির নেগেটিভ দিক তুলে ধরেন। বেশ কিছু নামী সংবাদ মাধ্যম তাঁদের সমালোচনার কলামে ছবিটিকে পাঁচটি স্টারের মধ্যে দেড় কিম্বা দুটি স্টার দিয়েছিলেন। কিন্তু ছবি রিলিজের প্রথম দিনের শেষে আর দ্বিতীয় দিনের শুরু থেকে ‍‍`ব্রহ্মাস্ত্র‍‍` সব নেগেটিভিটিকে পিছনে ফেলে দিয়ে, এমনকি সিনেমা বিশ্লেষকদের পজিটিভ অনুমানকেও ছাপিয়ে গিয়ে নতুন রেকর্ড তৈরির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

Link copied!